• নিজস্ব প্রতিবেদক
  • ২১ অক্টোবর ২০১৯ ১৩:৪৭:১৯
  • ২১ অক্টোবর ২০১৯ ১৩:৪৭:১৯
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

ভোলায় নিষিদ্ধ সকল সভা-সমাবেশ

ভোলায় সংঘর্ষের ঘটনা। ছবি : সংগৃহীত

আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে ভোলায় সকল ধরনের মিছিল, সভা-সমাবেশ নিষিদ্ধ করা হয়েছে। আজ ২১ অক্টোবর, সোমবার সকাল থেকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত এ নিষেধাজ্ঞা জারি থাকবে বলে জানিয়েছে জেলা প্রশাসন।

ভোলার জেলা প্রশাসক (ডিসি) মাসুদ আলম ছিদ্দিক এ বিষয়ে বলেন, ‘বর্তমান পরিস্থিতির কথা বিবেচনা করে সব ধরনের সভা-সমাবেশ নিষিদ্ধ করা হয়েছে। এখন পর্যন্ত পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে।’

তিনি আরো জানান, মোতায়েন রয়েছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি), পুলিশ, র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব), আমর্ড পুলিশ। কাউকে সমাবেশের অনুমতি দেওয়া হয়নি।

এদিকে আজ সোমবার বেলা ১১টা থেকে অবস্থান নিয়েছে ‘সর্বদলীয় ইসলামী ঐক্য পরিষদ’র নেতারা। তারা প্রেসক্লাব চত্বরে জড়ো হয়ে বিক্ষোভ করছে। সেখানে বিপুল সংখ্যক পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। 

প্রসঙ্গত, গত ১৮ অক্টোবর, শুক্রবার রাতে বিপ্লব চন্দ্র বৈদ্য (২৫) নামে এক যুবক নিজের ফেসবুক আইডি ‘Biplob Chandra Shuvo’ হ্যাক হওয়ার পরিপ্রেক্ষিতে বোরহানউদ্দিন থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন। জিডি করার সময় থানায় অবস্থানকালেই বিপ্লবের নম্বরে একটি কল আসে এবং তার কাছে চাঁদা দাবি করা হয়।

বিষয়টি তাৎক্ষণিকভাবে ওসিকে জানানো হলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হয়। প্রযুক্তির সহায়তায় সেদিন রাতেই বিপ্লবের ফেসবুক অ্যাকাউন্ট হ্যাক ও চাঁদা দাবির দায়ে শরীফ এবং ইমন নামে দুই যুবককে আটক করা হয়।

কিন্তু ওই আইডি থেকে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাতকারী কুৎসা রটনার ঘটনাকে কেন্দ্র করে তৌহিদি জনতার ব্যানারে সমাবেশ ডাকা হয়। এ সমাবেশে পুলিশ বাধা দিলে গতকাল ২০ অক্টোবর, রবিবার সংঘর্ষ বেঁধে যায়। এতে চারজন নিহত হন।

এদিকে সহিংসতার এ ঘটনায় বোরহানউদ্দিন থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আবিদ হোসেন বাদী হয়ে মামলা করেছেন। এ মামলায় অজ্ঞাতনামা পাঁচ হাজার জনকে আসামি করা হয়েছে।

বাংলা/এসএ

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0801 seconds.