• অর্থনৈতিক প্রতিবেদক
  • ১১ ডিসেম্বর ২০১৯ ১১:৪৯:১১
  • ১১ ডিসেম্বর ২০১৯ ১১:৪৯:১১
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশের জিডিপি প্রবৃদ্ধি ৮.১৫ : বিবিএস

ছবি : সংগৃহীত

বাংলাদেশের মোট দেশজ উৎপাদন (জিডিপি) প্রবৃদ্ধি বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৮.১৫ শতাংশ। বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর (বিবিএস) ০১৮-১৯ অর্থবছরের চূড়ান্ত হিসাবে এ তথ্য উঠে আসে। প্রাথমিক হিসাবে এর হার ছিল ৮ দশমিক ১৩ শতাংশ। এছাড়াও ডলারের বিনিময় হার বৃদ্ধি পাওয়ায় মাথাপিছু আয় বেড়েছে ৩৮০ টাকা।

রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ে গত ১০ ডিসেম্বর, মঙ্গলবার জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায় এসব তথ্য উপস্থাপন করা হয়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত একনেক’র বৈঠক শেষে পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান সাংবা সম্মেলনে এ তথ্য জানান।

এ সময় পরিকল্পনামন্ত্রী জানান, মাথাপিছু আয় প্রাথমিক হিসাবে যা ছিল, অর্থাৎ ১ হাজার ৯০৯ মার্কিন ডলার, এখনো সেটিই রয়েছে। তবে ডলারের দাম বেড়ে যাওয়ায় আমরা টাকার অংকে কিছুটা সুবিধা পেয়েছি। যেমন প্রাথমিক হিসাবে মাথাপিছু আয় ছিল ১ লাখ ৬০ হাজার ৬০ টাকা। চূড়ান্ত হিসাবে সেটি দাঁড়িয়েছে ১ লাখ ৬০ হাজার ৪৪০ টাকায়। মাথাপিছু আয় ও প্রবৃদ্ধি প্রাক্কলনের চেয়ে বেশি হওয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সন্তোষ প্রকাশ করেছেন। পাশাপাশি সামনের দিনগুলোয় তা আরো বাড়ানোর নির্দেশ দিয়েছেন।

তথ্য মতে, গত অর্থবছর সার্বিকভাবে প্রবৃদ্ধির হার বাড়লেও কৃষিতে প্রবৃদ্ধি কিছুটা কমেছে। ২০১৭-১৮ অর্থবছরে এ খাতে প্রবৃদ্ধি ছিল ৪ দশমিক ১৯ শতাংশ। গত অর্থবছরে তা ৩ দশমিক ৫১ শতাংশে নেমে এসেছে। কৃষির অন্যতম উপখাত মত্স্য খাতেও প্রবৃদ্ধির হার নিম্নমুখী। গত অর্থবছরে উপখাতটিতে ৬ দশমিক ২১ শতাংশ প্রবৃদ্ধি হলেও আগের অর্থবছরে এ হার ছিল ৬ দশমিক ৩৭ শতাংশ। অন্যদিকে গত অর্থবছরে শিল্প খাতে প্রবৃদ্ধি বেড়ে হয়েছে ১৩ দশমিক ২ শতাংশ, যা আগের অর্থবছরে ছিল ১২ দশমিক ৬০ শতাংশ। সেবা খাতে প্রবৃদ্ধি বেড়ে হয়েছে ৬ দশমিক ৫০ শতাংশ। ২০১৭-১৮ অর্থবছর এ খাতের প্রবৃদ্ধি ছিল ৬ দশমিক ৩৯ শতাংশ।

প্রসঙ্গত, ২০১৭-১৮ অর্থবছর দেশে সার্বিক জিডিপি প্রবৃদ্ধির হার ছিল ৭ দশমিক ৮৬ শতাংশ। এছাড়া ২০১৬-১৭ ও ২০১৫-১৬ অর্থবছরে এর হার ছিল যথাক্রমে ৭ দশমিক ২৮ ও ৭ দশমিক ১১ শতাংশ। অন্যদিকে ২০১৭-১৮ অর্থবছরে মাথাপিছু আয় ছিল ১ হাজার ৭৫১ ডলার। ২০১৬-১৭ অর্থবছর এর পরিমাণ ছিল ১ হাজার ৬১০ ও ২০১৫-১৬ অর্থবছর ১ হাজার ৪৬৫ ডলার।

বাংলা/এনএস

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0194 seconds.