• ৩১ ডিসেম্বর ২০১৯ ২২:৫৬:৪৬
  • ৩১ ডিসেম্বর ২০১৯ ২২:৫৬:৪৬
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

২০১৯ ট্র্যাজেডির বছর

ছবি : সংগৃহীত

আর এক ঘন্টা পরেই শেষ হয়ে যাচ্ছে ২০১৯ সাল। এই বছরটি ট্র্যাজেডির বছর হিসেবেই কালের ইতিহাসে চিহ্নিত হয়ে থাকবে। এই বছরেই বিশ্ববাসী নিউজিল্যান্ডের মসজিদ এবং শ্রীলংকার গির্জায় নির্মম সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা ঘটতে দেখেছে। এছাড়া ইউরোপে অভিবাসী মৃত্যুর ঘটনাও বিশ্বের অনেককেই নাড়া দিয়েছে।

ক্রাইস্টচার্চে মসজিদে হামলা

২০১৯ সালের ১৫ মার্চ নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চের দুটি মসজিদে নৃশংস হামলার ঘটনা ঘটে।  জুমার নামাজ পড়া মুসল্লিদের উপর বন্দুকধারী ব্রেন্টন ট্যারান্ট নির্বিচারে গুলি করতে থাকে। চরম ডানপন্থী এই অস্ট্রেলিয়ানের মুসলমানদের প্রতি ছিল তীব্র ঘৃণা। তার এই বর্বর কর্মকান্ডে ৫১ জন মুসল্লি প্রাণ হারান। নির্মম এই ঘটনায় নির্বাক হয়ে যান বিশ্বের বিবেকবান মানুষেরা। চারদিক থেকে নিন্দার ঝড় উঠে। সেসময় নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী জেসিন্ডা আহডার্ন সেদেশের মুসলিম সম্প্রদায়ের প্রতি যে সহমর্মিতা এবং সহানুভূতি দেখিয়েছেন তা সকলেরই দৃষ্টি আকর্ষণ করেছে। বিশ্বের অনেকেই সব দেশের জন্য তার মত একজন নেতা কামনা করেছেন।

শ্রীলংকায় ইস্টারে গির্জায় হামলা

মার্চে নিউজিল্যান্ডের মসজিদে হামলার রেশ কাটতে না কাটতেই এপ্রিলে আরেক মর্মান্তিক হামলার সাক্ষী হতে হলো বিশ্ববাসীকে। এবার মসজিদ নয় খ্রিষ্টানদের গির্জাকে টার্গেট করে সন্ত্রাসী হামলা হয়।  ঘটনাস্থল দ্বীপদেশ শ্রীলংকা। ২১ এপ্রিল ভয়াবহ এই হামলার কথা শুনে স্তব্ধ হয়ে যায় বিশ্ববাসী। খ্রিষ্টানদের উৎসবের দিন ইস্টার সানডেকে এই হামলার জন্য বেছে নেয়া হয়। তিনটি গির্জা এবং বিলাসবহুল হোটেলে বোমা হামলা করা হয়।  এতে ২৫৭ জন প্রাণ হারান। জঙ্গি গোষ্ঠী আইএস এই হামলার দায় স্বীকার করে।

ট্রাকে অভিবাসী মৃত্যুর ঘটনা

অক্টোবর মাসে ব্রিটেনের একটি ট্রাকে ৩৯ জন অভিবাসীর মরদেহ পাওয়া যায়। অবৈধভাবে ইউরোপে আসার পথে তারা কন্টেনারের ভিতর মারা যান। এটি বিশ্ব মিডিয়ায় খবরের শিরোনাম হয়। পরবর্তীকালে তদন্তের পর জানা যায়, এসব অভিবাসী ভিয়েতনামের ছিল।

অবশ্য উপরে উল্লেখ করা ঘটনা ছাড়াও সাড়া বছর জুড়েই বিভিন্ন ট্র্যাজেডির ঘটনা ঘটেছে। এছাড়া ইয়েমেন, সিরিয়া যুদ্ধে নিহতদের কথাও উল্লেখ করা যেতে পারে। ২০১৯ সালেও এই দুই দেশের যুদ্ধ অব্যাহত থেকেছে। ভয়াবহ এই যুদ্ধ কবে শেষ হবে তা কেউ বলতে পারছে না। আর এসব যুদ্ধের কারণেই উন্নত দেশগুলোতে অভিবাসীর ঢল নামে। বৈধ পথে যেতে না পেরে এসব অভিবাসীরা বিভিন্ন অবৈধ পথ বেছে নেয় যার পরিণতিতে নির্মমভাবে প্রাণ হারাতে হয় তাদের।

বাংলা/এফকে

সংশ্লিষ্ট বিষয়

সালতামামি ট্র্যাজেডি

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0250 seconds.