• ফিচার ডেস্ক
  • ০৩ জানুয়ারি ২০২০ ১৪:৪৭:০৯
  • ০৩ জানুয়ারি ২০২০ ১৪:৪৭:০৯
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

দ্রুত খাওয়া আনতে পারে যত বিপদ

ছবি : সংগৃহীত

প্রতিটি মানুষ সকাল, দুপর ও রাত তিন বেলা নিয়ম করে খাদ্য গ্রহণ করে। শরীরকে সুস্থ ও কর্মক্ষম রাখতে সময় মতো খাদ্য গ্রহণের বিকল্প নেই। কিন্তু সঠিকভাবে খাবার না খেলে সেটিও হতে পারে ক্ষতির কারণ। দ্রুত খেতে গিয়ে যেমন খাবারের স্বাদের অনুভূতি হারায়, তেমনি ক্ষতি হয় শরীরের।

তাই সময় নিয়ে তৃপ্তি সহকারে খাবার খাওয়া উচিত। দ্রুত খাওয়ার ক্ষতিকর নানা দিক নিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশ করে স্বাস্থ্য-বিষয়ক একটি ওয়েবসাইট।

অতিরিক্ত খাদ্য গ্রহণ:

যখন দ্রুত খাওয়া শেষ করছেন এবং কতটুকু খাচ্ছেন সেদিকে নজর দেয়া হচ্ছে না তখন প্রয়োজনের অতিরিক্ত খাওয়া হয়ে যেতে পারে। আর প্রয়োজনের বেশি খাওয়া থেকেই শুরু হবে ওজন বৃদ্ধি ও নানান শারীরিক সমস্যার। দ্রুত খেলে পেট যে ভরে গেছে তার সংকেত দেয়ার পর্যাপ্ত সুযোগ পায় না মস্তিষ্ক, ফলে বেশি খাওয়া হয়ে যায়।

স্থূলতার ঝুঁকি:

যারা দ্রুত খান তাদের ‘অবেসিটি’ অর্থাৎ অতিরিক্ত খাওয়ার কারণে স্থূলতার সমস্যা দেখা দেয়। এই সমস্যায় আক্রান্ত বেশিরভাগ তাদের পরিণতির জন্য নিজেদের ইচ্ছাশক্তির দুর্বলতা, অস্বাস্থ্যকর খাদ্যাভ্যাস, শারীরিক পরিশ্রমের অভাব ইত্যাদিকে দায়ী করেন। তবে দ্রুত খাওয়াও এখানে ভূমিকা রাখে। তাই খাবার খেতে হবে ধীরে, ভালোভাবে চিবিয়ে- এর পার্থক্য নিজেই লক্ষ করতে পারবেন।

হজমের সমস্যা:

দ্রুত খাওয়ার সময় একেবারে অনেকটা খাবার মুখে নেয়া হয় এবং তা যথেষ্ট পরিমাণে চিবানো হয়না। সঙ্গে পানি কিংবা কোমল পানীয় পান করলে ওই ভালোভাবে না চিবানো খাবারগুলো জোর করে গলা দিয়ে নামিয়ে ফেলা হয়। হজমের প্রতিটি ধাপই গুরুত্বপূর্ণ। আর মুখের ভেতর খাবার চিবানো তার একটি গুরুত্বপূর্ণ ধাপ। তাই এই ধাপ সুসম্পন্ন না হলে হজমে সমস্যা দেখা দেবে, পেট ফুলে থাকবে।

ইন্সুলিন প্রতিরোধ:

দ্রুত খেলে রক্তে শর্করার মাত্রা হঠাৎ করে বেড়ে যায়, যে কারণে শরীরে তৈরি হতে পারে ‘ইন্সুলিন রেজিস্ট্যান্স’। ইন্সুলিন রেজিস্ট্যান্স’র কারণেও রক্তে শর্করা মাত্রা বাড়ে, যা তৈরি করে ডায়াবেটিসের ঝুঁকি।

এ সব ঝুঁকি এড়াতে সময় নিয়ে ধীর-সুস্থে খাবার খাওয়া উচিত। যেভাবে কমাতে পারেন খাবারের গতি-

-কোনো বেলার খাওয়া বাদ দেয়া চলবে না। কারণ, একবেলার খাওয়া বাদ দিলে পরের বেলার প্রচণ্ড ক্ষুধা থাকে, যে কারণে খাওয়া গতি ও পরিমাণ দুটাই বেড়ে যায়।

- খাওয়ার সময় সম্পুর্ণ মনযোগ খাবারেই থাকা উচিত। টেলিভিশন, কম্পিউটার কিংবা মোবাইল হাতে নিয়ে খেলে বুঝতে পারবেন না কতটুকু খাওয়া হল এবং কত দ্রুত খাচ্ছেন, ফলে বেশি খাওয়া হয়ে যাবে।

- খাবার গলা দিয়ে নামানোর আগে ভালোভাবে চিবানোর অভ্যাস করতে হবে। এতে যেমন স্বাদ উপভোগ করতে পারবেন তেমনি খাওয়ার গতি হ্রাস পাবে। এমনকি হজম সংক্রান্ত সমস্যার আশঙ্কাও কমে যাবে।

বাংলা/এনএস

বিজ্ঞাপন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

দ্রুত খাওয়া বিপদ

আপনার মন্তব্য

Page rendered in: 0.0838 seconds.