• বিদেশ ডেস্ক
  • ১০ জানুয়ারি ২০২০ ১৬:০৭:০০
  • ১০ জানুয়ারি ২০২০ ১৬:০৭:০০
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

দাবানলের মধ্যেই চলছে ক্যাঙ্গারু নিধন

ছবি: সংগৃহীত

ইতিহাসের সবচেয়ে ভয়াবহতম দাবানল চলছে অস্ট্রেলিয়ায়। চার মাস আগে শুরু হওয়া এই চলমান আগুনে পুড়ে মারা গেছে একশ কোটিরও বেশি প্রাণি। এর মধ্যে চলছে দেশটির বার্ষিক ক্যাঙ্গারু নিধন প্রক্রিয়াও, যা দেশটির ক্যাঙ্গারু প্রজাতিকে বিলুপ্তি দিকে নিয়ে যাবে বলে আশঙ্কা করছেন নিসর্গসখারা।

তবে সরকারের তরফ থেকে ‘অনিয়ন্ত্রিত’ ক্যাঙ্গারু নিধনের পক্ষে সাফাই গাওয়া হয়েছে।

গত দশক থেকে প্রতি বছর অস্ট্রেলিয়ান ক্যাপিটাল টেরিটোরি (এসিটি) সরকার দেশটির তৃণভূমিকে রক্ষার জন্য ক্যাঙ্গারুকে গুলি করে মারছে। গত বছর এসিটি পার্কস এন্ড কনজারভেশন একটি রেকর্ড পরিমাণ ক্যাঙ্গারু হত্যা করে। ক্যানবেরার ৯টি তৃণভূমিতে প্রায় ৪ হাজার ৩৫টি ক্যাঙ্গারুকে গুলি করে মারা হয়।

নিউ সাউথ ওয়েলসে বিশাল এলাকা আগুনে পুড়ে যাওয়ার পরও এসিটি’র পরিবেশ বিভাগ এই বিতর্কিত চর্চার পক্ষে সাফাই গেয়ে একটি ভিডিও প্রকাশ করে।

পার্কস এন্ড কনজারভেশন পরিচালক ড্যানিয়েল ইগলেসিয়াস ক্যামেরার সামনে ব্যাখ্যা করেন সেখানে অনেক পূর্বাঞ্চলীয় ক্যাঙ্গারু রয়েছে। ‘তারা তৃণভূমিকে পছন্দ করে।’

এসিটি সরকারের পরিবেশবিদ ড স্টিফানি পুলসফোর্ডকেও ভিডিওতে দেখা যায়। তিনিও বলেন, ক্যাঙ্গারু হচ্ছে তৃণভূমির জন্য একটি হুমকি। ‘যখন সংখ্যায় অনেক বেশি থাকে, তারা বেশি বেশি ঘাস খেয়ে ফেলে। ফলে অন্য সব প্রাণী প্রয়োজনীয় ঘাস পায় না’, বলেন তিনি।

গেল বছরের সেপ্টেম্বর থেকে দাবানলে অস্ট্রেলিয়ার প্রায় ১০ মিলিয়ন হেক্টক পুড়ে গেছে। এতে ২৭ জন নিহত হয়েছেন। বাড়ি-ঘর পুড়ে গেছে ২ হাজারের বেশি। আর প্রাণী পুড়ে মারা গেছে ১০০ কোটিরও বেশি।

তবে সিডনি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক নিসর্গসখা ক্রিস ডিকম্যান এসিটি সরকারকে পরামর্শ দিয়েছেন, দাবানলের কথা চিন্তা করে তাদের এ কার্যক্রম থেকে সরে আসা উচিত, যদিও সংখ্যাধিক্যের কারণে আবাসস্থল ক্ষতির কারণ হয়ে দাঁড়ায়।

‘কিন্তু, এটা আসলে বিশাল একটা কিন্তু, আগুনে বিপুল সংখ্যক প্রাণি মারা যাওয়া নিয়ে সবখানে উদ্বেগের মধ্যে ক্যাঙ্গারুদের মেরে ফেলাটা ভালো দেখাবে না’, বলেন তিনি।

তবে এসিটি সরকারের একজন মুখপাত্র দাবানলের কারণে ক্যাঙ্গারুদের হত্যা না করার বিষয়টি আমলে নেয় নি। তিনি ডেইলি মেইল অস্ট্রেলিয়াকে বলেন, ‘অনিয়ন্ত্রিত ক্যাঙ্গারু সংখ্যা নেটিভ প্রজাতিদের ধ্বংস করে দিতে পারে।’

বাংলা/এনএডি

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

Page rendered in: 0.0738 seconds.