• বিদেশ ডেস্ক
  • ১৪ জানুয়ারি ২০২০ ১৬:৫২:৪৯
  • ১৪ জানুয়ারি ২০২০ ১৬:৫২:৪৯
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

‘অস্ট্রেলিয়ায় আগুন, ভবিষ্যত গ্রহের একটি পূর্বাভাস’

ছবি: সংগৃহীত

যদি তাপমাত্রাকে বিপদজনক মাত্রায় বাড়তে দেয়া হয় তবে বিশ্বজুড়ে ভবিষ্যতে কি ঘটবে তার একটা পরিষ্কার লক্ষণ হচ্ছে অস্ট্রেলিয়ায় চলতে থাকা দাবানল। রহস্য-উন্মোচক এই দৃশ্যাবলি হবে ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপামাত্রার দুনিয়ার জন্য একটি স্বাভাবিক বিষয়। বিজ্ঞানীরা এমনটি আশঙ্কা করছেন বলে দি গার্ডিয়ান জানাচ্ছে।

বিজ্ঞানীরা বলছেন, ‘এটা তাই যা আপনি প্রত্যাশা করতে পারেন... ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াসের একটি গড় হিসেবে (প্রাক-শিল্পযুগের উপরে)’, বলেন এক্সেটার বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূগোলের অধ্যাপক রিচার্ড বেটস।

‘তিন ডিগ্রি সেলসিয়াস বিশ্বে কি ধরণের পরিবেশ বিরাজ করবে এটি হল তার একটি সঙ্কেত। ভবিষ্যত বিশ্ব কেমন দেখাবে এটা সেই কথাই জানান দিচ্ছে। জলবায়ু পরিবর্তন কি জিনিস এটা সেই কথাই বলছে।’

এই মৌসুমের আগুন শুরু হওয়ার আগে অস্ট্রেলিয়ায় গড় তাপমাত্রা ছিল প্রাক-শিল্পযুগের স্তর থেকে ১ দশমিক ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াসের উপরে, যেখানে এ বৃদ্ধির বৈশ্বিক গড় ১ দশমিক ১ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

বিজ্ঞানীরা সর্তক করে দিয়ে বলেছেন, ২ ডিগ্রি সেলসিয়াসের বেশি এ বৃদ্ধি, জলবায়ু বিপর্যয়ের প্রভাব ভয়ানক এবং অপরিবর্তনীয় হয়ে উঠতে পারে, তবুও প্যারিস চুক্তির আওতায় গ্রিন হাউজ গ্যাস নির্গমন কমাতে বর্তমান বৈশ্বিক প্রতিশ্রুতি বিশ্বকে ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াসের পথে রাখবে।

‘এসব হচ্ছে ১ ডিগ্রি সেলসিয়াসে থাকার প্রভাব এবং এসব প্রভাব আরো কঠিনতর হবে যতক্ষণ না পর্যন্ত জলবায়ু ঠিক রাখতে যা করার তা না করা হয়’, বলেন ইস্ট অ্যাঙলিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের জলবায়ু বিজ্ঞান এবং নীতির অধ্যপাক কোরিনে লা কেরে।

তিনি বলেন, ‘এটা কোন নিউ নরমাল নয়- এটা আরো অধিকতর প্রভাবে রূপান্তর।’ 

বাংলা/এনএডি

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0682 seconds.