• ফিচার ডেস্ক
  • ১৭ জানুয়ারি ২০২০ ১৬:২১:৫১
  • ১৭ জানুয়ারি ২০২০ ১৬:২১:৫১
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

অফিসে যেসব অভ্যাসে আপনি হারাতে পারেন চাকরি

ফাইল ছবি

আমাদের মাঝে এমন কিছু আচরণ রয়েছে, যা নিয়ে আমার খুব বেশি সচেতন নই। কিন্তু এসব কারণে অজান্তেই ক্ষতি ডেকে আনে আমাদের পেশাদার জীবনে। এমনকি হারাতে পারেন আপনার মূল্যবান চাকরিটি। তবে চলুন দেখে নিই কী হতে পারে সেসব অভ্যাসগুলো-

নখ কামড়ানো: নখ কামড়ানো হল সবচেয়ে প্রচলিত একটি দৃষ্টিকটু বদভ্যাস। ক্যারিয়ার পরামর্শ বিশেষজ্ঞ অ্যামান্ডা অগাস্টিন বিজনেস ইনসাইডার-কে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে বলেন, এটি শুধু আপনার নখ আর ত্বকেরই ক্ষতিসাধন করে না, পাশাপাশি আপনার ব্যক্তিত্বেরও হ্রাস ঘটায়।

অবিরাম মোবাইল ফোন চালানো: বিশেষজ্ঞদের মতে, যে মানুষটা তার মোবাইল ফোন বা ঘড়ির দিকে না তাকিয়ে থাকতে পারে না, সে আসলে তার অনাগ্রহী মনোভাবকে প্রকাশ করে।

চুল মোচড়ানো: অন্যের সামনে নিজের চুল মোচড়ানো একটি অত্যন্ত দৃষ্টিকটু বদভ্যাস। চুল মোচড়ানোর অভ্যাস ত্যাগ করতে চাইলে আপনি কিছু হেয়ার স্টাইল যেমন- ফ্রেঞ্চ ট্যুইস্ট, বান অথবা স্মার্ট পনি টেলের আশ্রয় নিতে পারেন।

দাঁতে দাঁত ঘষা: রাতের বেলায় দাঁতে দাঁত ঘষার অভ্যাস থাকলে প্রচণ্ড চাপের মুহূর্তগুলোতে এই অভ্যাসটির পুনরাবৃত্তি ঘটতে পারে। এই বদভ্যাসটি রাগান্বিত হওয়া, ঔদ্ধত্য এমনকি উদ্বিগ্নতার বহিঃপ্রকাশ।

দ্রুত কথা বলা: ইন্টারভিউ বোর্ডে প্রশ্নকর্তার সামনে নিজেকে দুর্বোধ্য প্রতিপন্ন করার পাশাপাশি হড়বড় করে দ্রুত কথা বলার মাধ্যমে আপনি নিজেকে ধৈর্য্যহীন এবং নিয়ন্ত্রণ অক্ষম হিসেবে উপস্থাপন করবেন না।

কথা বলার সময় চোখের দিকে না তাকানো: ইন্টারভিউয়ের সময়ে সরাসরি প্রশ্নকর্তার চোখের দিকে না তাকিয়ে অর্থাৎ ‘‘আই কন্ট্যাক্ট’’ না করে উত্তর দেওয়াটা তাদের মনে আপনার সম্পর্কে এক ধরনের বিরূপ এবং নেতিবাচক প্রভাব ফেলতে পারে। অগাস্টিনের মতে, সরাসরি চোখের দিকে না তাকানোর বিষয়টি নিজেকে অপ্রস্তুত, অনাগ্রহী, অন্তঃসারশূণ্য এমনকি অহংকারী হিসেবে উপস্থাপন করতে পারে।

হাত মোচড়ানো কিংবা হাতের তালু উরুতে ঘষা: শিষ্টাচার বিশেষজ্ঞ এবং লেখিকা রোজালিনা ওরোপেজা র‌্যান্ডাল এ সম্পর্কে বিজনেস ইনসাইডারকে বলেন, এই ধরনের আচরণের ভয়ংকর রকম বাজে প্রভাব রয়েছে, এতে করে প্রশ্নকর্তাদের মনযোগ আপনার বক্তব্য থেকে সরে যেতে পারে এবং এক ধরনের অস্বস্তিকর পরিবেশের সৃষ্টি করতে পারে।

‘হ্যাঁ, ভালো প্রশ্ন’ মন্তব্য করা: ইন্টারভিউ বোর্ডে প্রতিটি প্রশ্নের উত্তরেই এই প্রত্ত্যুতরটি করা প্রমাণ করে যে, আপনি কতটা বাছবিচারহীন! পাশাপাশি কর্মক্ষেত্রে উপরস্থ পদের কারো সঙ্গে প্রত্যেকটি কথায় ‘‘ভালো বলেছেন’’ মন্তব্য করা প্রমাণ করে আপনি নিজস্ব মতামত দিতে অপারগ একজন মানুষ।

সময়ের সঙ্গে সামঞ্জস্যহীন আচরণ করা: একজন বিশেষজ্ঞের মতে, গুরুগম্ভীর মুহূর্তগুলোতে হঠাৎ হো হো করে হেসে ওঠা বা হায়েনার মত গগনবিদারী শব্দে হাসা কলিগদের মধ্যে আপনার সম্পর্কে নেতিবাচক ধারণার জন্ম দেয়।

ভ্রু কোঁচকানো: ভ্রুকুটি করা বা ভ্রু কোঁচকানোর ফলে শুধুমাত্র আপনার অসন্তোষই প্রকাশ পায় না, পাশাপাশি এটা আপনাকে কম বুদ্ধিসম্পন্ন হিসেবে উপস্থাপন করে।

সংশ্লিষ্ট বিষয়

চাকরি অভ্যাস টিপস

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0315 seconds.