• বিদেশ ডেস্ক
  • ২৪ জানুয়ারি ২০২০ ২২:৫৭:৪৯
  • ২৪ জানুয়ারি ২০২০ ২২:৫৭:৪৯
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

‘আমরা মার্কিন সেনাদের বের করে দিতে চাই’

ছবি : সংগৃহীত

মার্কিন সৈন্য প্রত্যাহারের দাবি জানিয়ে ইরাকে ব্যাপক বিক্ষোভ হয়েছে। ২৪ জানুয়ারি, শুক্রবার অনুষ্ঠিত এই বিক্ষোভে হাজার হাজার ইরাকি রাজধানী বাগদাদের রাস্তায় নেমে এসে আমেরিকা বিরোধী বিভিন্ন স্লোগান দিতে থাকে।

শিয়া নেতা মুক্তাদা আল সদরের ডাকে এই বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত হয়। ইরাক থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের দাবিতে তিনি লাখো কন্ঠের শক্তিশালী এক পদযাত্রার আহ্বান জানান ইরাকিদের প্রতি।

শুক্রবার সকাল থেকেই বিভিন্ন বয়সের নারী-পুরুষ এমনকি শিশুরাও ইরাকি পতাকা হাতে নিয়ে রাস্তায় নেমে আসে। বাগদাদের কেন্দ্রীয় চত্বর থেকে লাউডস্পিকারে আমেরিকার বিরুদ্ধে স্লোগান দেয়া হয়। এসময় একটি শিশুর হাতে আমেরিকা এবং ইসরায়েলের মৃত্যু কামনা করে লেখা একটি পোস্টারও দেখা গেছে।

হাজার হাজার ইরাকি নাগরিক মার্কিন সেনাদের ইরাকের মাটি থেকে উৎখাত করার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।

মরিয়ম নামের ১৮ বছর বয়সি এক তরুণী আল জাজিরাকে বলেন, ‘আমাদের দেশে মার্কিন সেনা উপস্থিতির বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানানোর জন্য আজকের এই বিক্ষোভে অংশ নিতে আমি এসেছি।’

উল্লেখ্য, ৩ জানুয়ারি ইরাকের রাজধানী বাগদাদে মার্কিনী ড্রোন হামলায় ইরানি জেনারেল কাশেম সোলাইমানিসহ ইরাকি মিলিশিয়া বাহিনী প্রধান আবু মাহদী আল মুহানদিস মারা যান। তাদের মৃত্যুর পরেই ইরাক থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের দাবি তীব্র হয়ে উঠতে থাকে।   

সোলেইমানি হত্যার দুই দিন পরেই ইরাকের সংসদে দেশটি থেকে মার্কিনসহ বিদেশি সেনা প্রত্যাহার করার জন্য একটি প্রস্তাব পাশ হয়। এই প্রস্তাবে মার্কিন সেনাদের ইরাকে থাকার জন্য ইরাকি সরকার যে অনুরোধ করেছিল তা বাতিল করার আহ্বান জানানো হয়। প্রসঙ্গত, জঙ্গিগোষ্ঠী আইএসের বিরুদ্ধে লড়ার জন্য মার্কিন সেনাদের ইরাকে থাকার অনুরোধ করেছিল দেশটির সরকার।

ইরাকি সংসদে এই প্রস্তাব পাস হওয়ার পর মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ইরাকের প্রতি নিষেধাজ্ঞা আরোপের হুমকি দেয়।

ট্রাম্পের হুমকি সত্ত্বেও ইরাকিরা মার্কিন সেনাদের নিজ দেশ থেকে বের করে দেয়ার ব্যাপারে দৃঢ প্রত্যয়ী।  শুক্রবারের এই বিক্ষোভ দেখে অন্তত তাই মনে হয়।

বাংলা/এফকে

 

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0416 seconds.