• ক্রীড়া ডেস্ক
  • ৩১ জানুয়ারি ২০২০ ২১:১২:৪০
  • ৩১ জানুয়ারি ২০২০ ২১:১২:৪০
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

করোনাভাইরাস আতঙ্কে চীনে খেলাও বন্ধ

ছবি : সংগৃহীত

চীনে ছড়িয়ে পড়া প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের কারণে দেশটির ঘরোয়া ফুটবল লিগের শীর্ষ স্তর চাইনিজ সুপার লিগের সময়সূচি অনির্দিষ্টকালের জন্য পিছিয়েছে দেশটি। ফলে এবারের লিগ খেলতে আরো অপেক্ষা করতে হবে অস্কার, ফেলাইনি, পাওলিনহো, ইয়ায়া তুরেদের মতো নামি-দামি খেলোয়াড়দের।

গত বছরের ডিসেম্বরে চীনের উহান শহর থেকে এই করোনাভাইরাস বিশ্বের ১৮টি দেশে ছড়িয়ে পড়ে। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত এই ভাইরাসে ২১৩ জন প্রাণ হারিয়েছেন ও আক্রান্ত হয়েছেন প্রায় ১০ হাজার মানুষ।

এই ভাইরাসের প্রকোপ ঠেকাতে ‘চাইনিজ সুপার লিগ’ এর সময়সূচি অনির্দিষ্টকালের জন্য পিছিয়ে দিয়েছে দেশটির ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন। এখনো পর্যন্ত নতুন দিন-তারিখ কিছুই ঘোষণা করেনি ফেডারেশন।

সূচি অনুযায়ী, আগামী ২২ ফেব্রুয়ারি থেকে চাইনিজ সুপার লিগ শুরু হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু পরবর্তীতে কবে শুরু হবে তা অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির খবরে বলা হয়েছে, শুধু ফুটবলই নয়, চীনে অনুষ্ঠিতব্য অন্যান্য আন্তর্জাতিক খেলার ইভেন্টগুলোও করোনাভাইরাসের কারণে সংকটের মধ্যে পড়েছে। ১৫ ও ১৬ ফেব্রুয়ারির ‘আলপাইন স্কিইং’ বিশ্বকাপ অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা থাকলেও তা বাতিল করা হয়েছে।

মার্চে বিশ্ব অ্যাথলেটিকস ইনডোর চ্যাম্পিয়নশিপ, অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। পরে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার পরামর্শ নিয়ে তা ১২ মাস পেছানো হয়েছে।

উচ্চ পারিশ্রমিকে দিদিয়ের দ্রগবা, নিকোলাস আনেলকা, হাল্ক, কার্লোস তেভেজদের মতো আন্তর্জাতিক অনেক খ্যাতিমান ফুটবলারকে দলে ভেড়ায় চাইনিজ সুপার লিগের দলগুলো। যার ফলে  জনপ্রিয় হয়ে ওঠে চাইনিজ সুপার লিগ।

বর্তমানে অস্কার, মারুয়ান ফেলাইনি, ইয়াইয়া তোরে, সলোমন রনডন, পাওলিনহো, মুসা ডেমবেলে, স্টেফান এল শারাউয়ি, ওদিওন ইঘালো, মার্কো আরনাউতোভিচের মতো খেলোয়াড়েরা। অনির্দিষ্টকালের জন্য মাঠের বাইরে থাকা এসব খেলোয়াড়দের জন্য বিপত্তিই বটে।

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0207 seconds.