• বিনোদন ডেস্ক
  • ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ১৩:৩৮:০৮
  • ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ১৬:১৮:৫৪
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

মান্নার চিরপ্রস্থানের এক যুগ

ফাইল ছবি

চিত্রনায়ক মান্নার ১২তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ ১৭ ফেব্রুয়ারি, সোমবার। ২০০৮ সালের ১৭ ফেব্রুয়ারি আকস্মিকভাবে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান তিনি।

১৯৮৪ সালে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উন্নয়ন কর্পোরেশনের (বিএফডিসি) নতুন মুখের সন্ধানে কার্যক্রমে নির্বাচিত হয়ে ঢাকাই সিনেমায় পা রাখেন এস এম আসলাম তালুকদার ওরফে মান্না। সেবছরই তিনি  ‘তওবা’ নামের চলচ্চিত্রে প্রথম অভিনয় করেন তিনি। তবে তার অভিনীত প্রথম মুক্তি প্রাপ্ত ছবি ‘পাগলী’।

১৯৯১ সালে মোস্তফা আনোয়ার পরিচালিত ‘কাসেম মালার প্রেম’ ছবিতে একক নায়ক হিসেবে আত্মপ্রকাশ করেন মান্না। ব্যবসাসফল এই সিনেমার পর আর তাকে পেছন ফিরে তাকাতে হয়নি। একে একে তিনি উপহার দেন অসংখ্য সুপারহিট চলচ্চিত্র। তিন দশকের ক্যারিয়ারে মান্না অভিনয় করেন সাড়ে তিনশ’র বেশি সিনেমায়।

কাজী হায়াত পরিচালিত ‘দাঙ্গা’ ও ‘ত্রাস’ সিনেমায় অভিনয় করে তিনি আলোচনার তুঙ্গে উঠে আসেন। তিনি অভিনয় করেন মোস্তফা আনোয়ার পরিচালিত ‘অন্ধ প্রেম’, মনতাজুর রহমান আকবর পরিচালিত ‘প্রেম দিওয়ানা’ ও ‘ডিস্কো ড্যান্সার’, কাজী হায়াতের ‘দেশদ্রোহী’র মতো দর্শকপ্রিয় সিনেমায়। এসব চলচ্চিত্র তাকে অন্য উচ্চতায় তুলে দেয়। তিনি হয়ে উঠেন বাংলা চলচ্চিত্রের সুপারস্টার। 

তার অভিনীত উল্লেখযোগ্য চলচ্চিত্রের মধ্যে রয়েছে- ‘সিপাহী‘, ‘যন্ত্রণা’, ‘অমর’, ‘জনতার বাদশা’, ‘লাল বাদশা’, ‘আম্মাজান’, ‘দেশ দরদী’, ‘অন্ধ আইন’, ‘স্বামী-স্ত্রীর যুদ্ধ’, ‘অবুঝ শিশু’, ‘মায়ের মর্যাদা’, ‘মা বাবার স্বপ্ন’, ‘হৃদয় থেকে পাওয়া’ ইত্যাদি।

প্রযোজক হিসেবেও বেশ সফল ছিলেন মান্না। তার প্রতিষ্ঠান থেকে প্রযোজিত ব্যবসাসফল ছবিগুলোর মধ্যে রয়েছে ‘লুটতরাজ’, ‘লাল বাদশা’, ‘আব্বাজান’, ‘স্বামী-স্ত্রীর যুদ্ধ’, ‘দুই বধূ এক স্বামী’, ‘মনের সাথে যুদ্ধ’, ‘মান্না ভাই’, ‘পিতা-মাতার আমানত’ ইত্যাদি।

১৯৬৪ সালে টাঙ্গাইলের কালিহাতী উপজেলার এলেঙ্গায় জন্মগ্রহণ করেন এস এম আসলাম তালুকদার ওরফে মান্না। ২০০৮ সালে মৃত্যুর পর গ্রামের বাড়িতেই তাকে সমাহিত করা হয়।

বাংলা/এসএ

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0215 seconds.