• বিদেশ ডেস্ক
  • ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ১৭:৪৯:২৬
  • ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ১৭:৪৯:২৬
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

শিশুদের ব্যক্তিগত তথ্য গুগলের হাতে, আদালতে মামলা

ছবি : সংগৃহীত

যুক্তরাষ্ট্রে কিন্ডারগার্টেন থেকে শুরু করে প্রাথমিক ও মাধ্যমিক শিশুদের ডিজিটাল জীবনের উপর নজরদারি করছে গুগল। এভাবে লক্ষ লক্ষ শিশুর উপর “গুপ্তচরবৃত্তির” অভিযোগ করে একটি মামলা দায়ের করেছে নিউ মেহিকোর অ্যাটর্নি জেনারেলে হেক্তর বালদেরাস। খবর সিবিএস নিউজ ডটকমের।

আমেরিকার শ্রেণিকক্ষগুলোতে প্রযুক্তি সরবরাহে একেবারে পুরোভাগে থাকা গুগল স্কুলগুলোতে তার আধিপত্যের প্রয়োগ করছে লক্ষ লক্ষ ভবিষ্যত ভোক্তাদের উপর “গুপ্তচরবৃত্তি” করার মধ্য দিয়ে।

বৃহস্পতিবার রাষ্ট্রের অ্যাটর্নি জেনারেল হেক্তর বালদেরাসের দায়ের করা মামলায় বলা হয়, “গুগলের ট্র্যাকিংয়ের ফলাফল এর চেয়ে আর বেশি দৃঢ়ভাবে বলা যায় না: বিশ্বের অন্যতম বৃহত্তম ডেটা-মাইনিং কম্পানি কর্তৃক শিশুদেরকে নজরদারির মধ্যে রাখা হয়েছে; তাদেরকে না জানিয়ে এবং বাবা-মার অনুমতি না নিয়ে স্কুলে, বাড়িতে, মোবাইল ডিভাইসে তাদেরকে মনিটর করা হচ্ছে।”

মামলার নথি অনুসারে, কয়েক বছরের মধ্যে গুগল ‘একটি “ফ্রি ওয়েব-বেসড সার্ভিসের’ অফার দিয়ে দেশের অর্ধেকের বেশি প্রাথমিক এবং মাধ্যমিক স্কুলে অণুপ্রবেশ করেছে।” এই অফারটি শিশুদেরকে কম্পানির ইমেইল, ক্যালেন্ডার এবং ড্রাইভ সার্ভিসে অ্যাকসেস দিয়েছিল।

এছাড়াও অভিযোগ রয়েছে, গুগল স্কুল এবং মা-বাবাদের ভ্রান্ত পথে চালিত করেছে এই নিশ্চয়তা দিয়ে যে শিক্ষামূলক পণ্যে কোন ধরণের প্রাইভেসি ইস্যু নেই।

শিশুদের উপর গুগলের ডেটা-মাইনিং দেশটির চিলড্রেন’স অনলাইন প্রাইভেসি প্রটেকশন অ্যাক্ট-কে লঙ্ঘন করে বলেও মামলায় উল্লেখ করা হয়।

শিক্ষামূলক টুল হিসেবে বাজারজাত করার পর গুগল এডুকেশন এখন ব্যবহার করছে ৮০ মিলিয়ন শিক্ষক এবং শিক্ষার্থী যাতে তাদের ব্যক্তিগত তথ্য এবং ডিজিটাল জীবনে কম্পানিকে অ্যাকসেস দেয়া হচ্ছে। ২৫ মিলিয়নের বেশি শিক্ষার্থী এবং শিক্ষক ক্রমবুকস, ল্যাপটপ ব্যবহার করছে যা গুগল অপারেটিং সিস্টেম দিয়ে চালিত।

তবে গুগল এ অভিযোগ প্রত্যাখান করেছে।

উল্লেখ্য, ইউটিউবে শিশুদের গোপনীয়তা লঙ্ঘনের জন্য সেপ্টেম্বরে গুগলকে ১৭০ মিলিয়ন ডলার জরিমানা গুণতে সম্মত হয়েছিল।

আপনার মন্তব্য

Page rendered in: 0.0209 seconds.