• বিদেশ ডেস্ক
  • ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ১৭:৫৯:২৫
  • ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ১৭:৫৯:২৫
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

সদ্য নবজাতকের ‘রাগে আগুন’ চেহারা

ছবি : সংগৃহীত

সদ্য কোনো নবজাতক জন্মানোর পরেই চিকিৎসকেরা চেষ্টা করেন তাকে কাঁদাতে। নবজাতকের ফুসফুস সঠিকভাবে কাজ করছে কি-না তা জানতেই এই চেষ্টা করা হয়ে থাকে। কিন্তু এক নবজাতককে কাঁদানো চেষ্টা করতে গিয়ে বিপাকে পড়েছেন চিকিৎসকেরা! রেগে আগুন ওই নবজাতক।

জানা যায়, ১৩ ফেব্রুয়ারি ব্রাজিলের রিও ডি জেনিরোর একটি হাসপাতালে জন্ম হয় এক শিশু কন্যার। জন্মের পর থেকেই তাকে কাঁদাতে পারেননি চিকিৎসকেরা। তার অ্যাম্বিক্যাল কর্ড কাটার আগে থেকেই চিকিৎসকেরা তাকে কাঁদানোর চেষ্টা করেন। উল্টে চিকিৎসকদের দিকে রাগী মুখে তাকিয়ে থাকে নবজাতক। নবজাতকের এই ছবিই ভাইরাল হয়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।

অভিভাবকরা নবজাতক সেই শিশু কন্যার নাম ইসাবেলা পেরেরা ডি জিসাস। রিও ডি জেনিরোর সংলগ্ন সেই হাসপাতালের চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, এর আগে কোনো নবজাতকের এমন অভিব্যক্তি তারা দেখার সুযোগ দেখেনি। তাই এই বিরল দৃশ্য ঘটনাস্থলেই ক্যামেরাবন্দি করেন নবজাতকের বাবা। 

নবজাতকের বাবা পেশায় ফটোগ্রাফার, নাম রড্রিগো কুনস্টম্যান। তাকে কাঁদানোর চেষ্টায় ইসাবেলার এই অভিব্যক্তিতে হতবাক সকল চিকিৎসক। জানা গেছে, অ্যাম্বিক্যাল কর্ড কাটার পরে কাঁদতে শুরু করেছিল এই 'রাগী' শিশু কন্যা।

ইসাবেলার বাবা জানিয়েছেন, এই মুহূর্তটা কখনোই ভুলার নয়। একদিকে খুব দুঃশ্চিন্তা তার মধ্যে জন্মানোর ঠিক পরেই মেয়ের এমন অভিব্যক্তি যদি ক্যামেরাবন্দি না করতাম তবে কিছুতেই আমার স্ত্রীকে এই দৃশ্য দেখাতে পারতাম না। চিকিৎসকেরা রীতিমতো নাজেহাল হয়ে গিয়েছিলেন ওকে কাঁদানোর চেষ্টায়। তারপর এমন এক্সপ্রেশনে চিকিৎসকেরা হেসেই ফেলেছেন।

সংশ্লিষ্ট বিষয়

ব্রাজিল নবজাতক

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0208 seconds.