• বিদেশ ডেস্ক
  • ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ১৮:৩৭:৪৫
  • ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ১৮:৩৭:৪৫
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

গুজরাট মডেল দিল্লী পৌঁছালো

ছবি : সংগৃহীত

উত্তর-পূর্ব দিল্লিতে রবিবার শুরু হওয়া সহিংসতা গড়িয়েছে মঙ্গলবার রাত পর্যন্ত। এতে ২২ জন নিহত হয়েছেন, আহত হয়েছেন দুই শতাধিকের বেশি। বিভিন্ন রিপোর্ট বলছে, সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের সমর্থনকারীরা মুসলিম প্রতিবেশীদেরকে লক্ষ্যবস্তুতে পরিণত করেছে যেখানে একটি মসজিদে আক্রমণসহ রয়েছে সাংবাদিকদের উপর হামলার ঘটনাও। এর মধ্যে একজন সাংবাদিক গুলিবিদ্ধ হওয়ার খবরও পাওয়া গেছে।  সংবাদ স্ক্রল ইন এর।

এ ঘটনার বিবরণ দেশের পত্রিকাগুলো কীভাবে তুলে এনেছে এখানে সেগুলোর প্রথম পাতাগুলো তুলে ধরা হলো।

দি টেলিগ্রাফ কোনো শব্দ ছেঁটে ফেলেনি: ‘গুজরাট মডেল দিল্লি পৌঁছানোর সঙ্গে সঙ্গে নিরোরা ভোজনে।’ প্রথম পৃষ্ঠাটি এও ছাপে যে মঙ্গলবার একজন সাংবাদিক পৈতা দেখিয়ে একটি হিন্দু মব থেকে বেঁচে যান।

দি ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস দিল্লি পুলিশ বাহিনীর কুর্কমের সহকারিতা জোর দিয়ে প্রকাশ করে।

দি টাইমস অফ ইন্ডিয়া মৃত্যুর সংখ্যা এবং আহতদের খবর ফলাও করে ছাপে। এটি সাংবাদিকদের উপরে আক্রমণের বিষয়টি এবং সহিংসতার সমালোচনা করে দিল্লি চিপ মিনিস্টার অরবিন্দ কেজরিয়ালের মন্তব্য তুলে ধরে।

এছাড়াও মৃত্যুর সংখ্যা ফোকাসে ছিল দি হিন্দু, হিন্দুস্তান টাইমস এবং দি স্টেটসম্যানের।

দি হিন্দু'র প্রথম পাতা।

হিন্দুস্তান টাইমসের প্রথম পাতা।

দৈনিক জাগরান প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির আমেরিকার প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সাক্ষাত বিষয়ে একটি প্রতিবেদনের নিচে দিল্লি সহিংসতার একটি খবর ছাপে। শিরোনামটি বলছে, “দাঙ্গাকারীদের দেখামাত্রই গুলি।" এছাড়াও পাশাপাশি রয়েছে ৫৬ পুলিশ সদস্যের আহত হওয়ার খবর।

হিন্দু দৈনিক নবভারত টাইমস তার প্রথম পাতা নিয়ে একধাপ এগিয়ে। সহিংসতা কবলিত দিল্লির একটি ছবির পাশাপাশি, পত্রিকা সহিংসতা প্রশমনে ৫ দফার পরামর্শ সরবরাহ করে: অসমর্থিত খবর, সোসাল মিডিয়া পোস্ট বিশ্বাস করবেন না কিংবা শেয়ার করবেন না। সহিংসতা উস্কে দেয় এমন সন্দেহজনক কার্যক্রমের ব্যাপারে পুলিশকে অবহিত করুন, শান্তি সংরক্ষণে আপনার প্রতিবেশীদের সঙ্গে সভা করুন এবং সহিংসতার ভুক্তভোগীদের নিরাপদ জায়গা দিন।

হিন্দু পত্রিকা দৈনিক ভাস্কর সহিংসতাকে "গেরিলা যুদ্ধ" হিসেবে চরিত্রায়িত করেছে এবং "দয়া করে প্রতিবেশীসুলভ আচরণ রক্ষা করুন"। 

মারাঠি সংবাদপত্র সামনা, যেটি মহারাষ্ট্র মুখ্যমন্ত্রী উদ্ভব ঠাকরের শিব সেনা পার্টি কর্তৃক প্রকাশিত, সেটি বলছে, “এক মাসের জন্য দিল্লিতে ১৪৪ ধারা"। প্রধান ছবিটি ছিল একজন মুসলিমের যিনি দাঙ্গাকারীদের কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করছেন। 

মহারাষ্ট্রের নেতৃস্থানীয় দৈনিক সকালও আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতির উপর জোর দিয়েছে: “দেখামাত্র গুলি"।

বাংলা দৈনিক আনন্দবাজার পত্রিকা দাঙ্গার শিকার হওয়া সন্তানদের মধ্যে অভিন্নতা ফোকাস করেছে।

সংশ্লিষ্ট বিষয়

ভারত গুজরাট মডেল

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0218 seconds.