• বিদেশ ডেস্ক
  • ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ২২:৫৯:৫৯
  • ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ২২:৫৯:৫৯
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

ভারতে মুসলমানদের বিরুদ্ধে গণহত্যার নিন্দা করেছেন এরদোয়ান

রেজেব তাইয়িপ এরদোয়ান। ছবি : সংগৃহীত

ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লিতে সাম্প্রদায়িক সহিংসতা সৃষ্টি করে মুসলমান হত্যার বিরুদ্ধে নিন্দা জানিয়েছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রেজেব তাইয়িপ এরদোয়ান। ৫ দিন ধরে চলা এই সহিংসতায় এখন পর্যন্ত ৩৮ জন প্রাণ হারিয়েছেন।     

বৃহস্পতিবার(২৭ ফেব্রুয়ারি) তুরস্কের রাজধানী আংকারায় একটি অনুষ্ঠানে প্রেসিডেন্ট এরদোয়ান বলেন, ‘ এখন ভারত এমন একটি দেশে পরিণত হয়েছে যেখানে গণহত্যার বিস্তার ঘটেছে।  কিসের গণহত্যা? মুসলমানদের হত্যাযজ্ঞ।  কাদের দ্বারা? হিন্দুদের। ’  

এরদোয়ান অভিযোগ করেন, উন্মত্ত জনতা প্রাইভেট শিক্ষা কেন্দ্রে শিক্ষারত মুসলিম শিশুদের হত্যার উদ্দেশ্যে ধাতব লাঠি দিয়ে আঘাত করে।

তিনি বলেন, ‘ কীভাবে এসব লোক বিশ্বব্যাপী শান্তি সম্ভব করবে?  এটা অসম্ভব।  যেহেতু তাদের জনসংখ্যা বেশি সেহেতু বক্তৃতা করার সময় তারা বলে, আমরা শক্তিশালী কিন্তু এটা শক্তিমত্তা নয়। ’

প্রসঙ্গত, নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনকে কেন্দ্র করে রবিবার( ২৩ ফেব্রুয়ারি) থেকেই নয়াদিল্লিতে এই আইনের পক্ষ এবং বিপক্ষ দলের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষের সৃষ্টি হয়।  এসময় কট্টর হিন্দুত্ববাদীরা মুসলমানদের উপর ঝাঁপিয়ে পড়ে।  

সাম্প্রদায়িক এই সহিংসতায় ২০০’র বেশি মানুষ আহত এবং ৩৮ জন নিহত হয়েছেন।  হিন্দুত্ববাদীরা মুসলমানদের মসজিদে আগুন লাগিয়ে দেয় এবং একটি মসজিদের মিনারে হিন্দুত্ববাদীদের গেরুয়া পতাকা টাঙ্গিয়ে দেয়।    

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি গত বছরের ডিসেম্বরে নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের প্রবর্তন করেন।  এই আইনের ফলে আফগানিস্তান, পাকিস্তান এবং বাংলাদেশের নির্যাতিত সংখ্যালঘুরা ভারতে নাগরিকত্বের আবেদন করতে পারবে। কিন্তু ভারতীয় মুসলমানরা নিজেদের নাগরিকত্ব হারানোর ভয়ে এই আইনের তীব্র বিরোধিতা করতে থাকেন।  এটির বিরুদ্ধে দেশজুড়ে তীব্র প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হচ্ছে।  দিল্লিতে অনুষ্ঠিত সাম্প্রদায়িক সহিংসতার মাধ্যমে এই আইনের সর্বশেষ প্রতিক্রিয়া দেখতে পেল বিশ্ববাসী।

 বাংলা/এফকে   

 

 

 

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0212 seconds.