• নিজস্ব প্রতিবেদক
  • ০১ মার্চ ২০২০ ১৯:১৩:৩৩
  • ০১ মার্চ ২০২০ ১৯:১৪:৩২
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

এক সময়ে ৩ আসামির জবানবন্দি, ম্যাজিস্ট্রেটকে তলব

ফাইল ছবি

একটি হত্যা মামলায় একই সময়ে তিন আসামির স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি গ্রহণের বিষয়ে ব্যাখ্যা দিতে শরীয়তপুরের অতিরিক্ত চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ নেজাম উদ্দীনকে ডেকেছেন হাইকোর্ট। আগামী ২৯ মার্চ তাকে স্বশরীরে আদালতে এসে এ বিষয়ে ব্যাখ্যা দিতে হবে।

১ মার্চ, রবিবার ওই মামলায় দুই আসামীর জামিন শুনানিকালে বিচারপতি ওবায়দুল হাসান ও বিচারপতি একেএম জহিরুল হকের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

এ সময় আদালতে জামিন আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী সাব্বির হামজা চৌধুরী ও রেজাউল করিম। অপরদিকে রাষ্ট্রপক্ষের ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মো. সারওয়ার হোসেন (বাপ্পী)।

ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মো. সারওয়ার হোসেন (বাপ্পী) জানান, আদালত দুই আসামীকে জামিন দিয়ে একই সময়ে তিন আসামির স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি গ্রহণের বিষয়ে জানতে চায় আদালত। এজন্য ২৯ মার্চ শরীয়তপুরের অতিরিক্ত চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ নেজাম উদ্দীনকে তলব করেছেন হাইকোর্ট।

এ বিষয়ে রেজাউল করিম জানান, ২০১৮ সালের ৫ জুলাই ভ্যান চালক খলিল ফকির হত্যার অভিযোগে দুইজনকে আসামী করে শরীয়তপুরের জাজিরা থানায় মামলা করা হয়। এরপর মামলার অভিযোগপত্রে রুবেল চৌকিদার, লিটন সানি ও আলী হোসেন বেপারীকে অন্তভূক্ত করা হয়। ওই মামলায় ২০১৮ সালের ১৯ জুলাই তিন আসামীর স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী গ্রহণ করেন শরীয়তপুরের অতিরিক্ত চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ নেজাম উদ্দীন। যেখানে তিন জনের একই সময় দেখানো হয়েছে।

পরবর্তীতে এ মামলার দুই আসামী লিটন সানি ও মো. আলী হোসেন বেপারী জামিন চেয়ে হাইকোর্টে আবেদন জানান। ওই আবেদনের শুনানিতে বিষয়টি উক্ত বিষয়টি উঠে আসায় অতিরিক্ত চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ নেজাম উদ্দীনকে তলব করেন। একইসঙ্গে দুই আসামী লিটন সানি ও মো. আলী হোসেন বেপারীকে ৬ মাসের জন্য জামিন দেন।

বাংলা/এনএস

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0208 seconds.