• ০৬ মার্চ ২০২০ ২১:২২:৩১
  • ০৭ মার্চ ২০২০ ২০:২৫:৫৫
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

ইয়াবাসহ ২ ছাত্রলীগ নেতা গ্রেপ্তার

এরশাদুল হক। ছবি : সংগৃহীত

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি :

কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরী উপজেলার রামখানার ইউনিয়নের ছাত্রলীগ সভাপতি এরশাদুল হক ও সহ সভাপতি সফিকুল ইসলামকে ইয়াবাসহ গ্রেপ্তার করেছে ডিবি পুলিশ। ৫ মার্চ, শনিবার দিবাগত রাতে উপজেলার রামখানা ইউনিয়ন থেকে ৩০ পিচ ইয়াবাসহ তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। ডিবি পুলিশ কুড়িগ্রামের অফিসার ইন চার্জ (ওসি) মোখলেছুর রহমান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

পুলিশ জানায়, এরশাদুল হক মাদক সেবনের পাশাপাশি মাদকের ব্যবসা করে আসছিল। তার বিরুদ্ধে আগে থেকেই মাদক সংশ্লিষ্টতার অভিযোগ ছিল। শনিবার রামখানা ইউনিয়নের নাখারগঞ্জ বাজার থেকে শফিকুল ইসলাম সহ তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। এ সময় তাদের কাছ থেকে ৩০ পিচ ইয়াবা উদ্ধার করা হয়।

নাগেশ্বরী উপজেলা ছাত্র লীগের সভাপতি মো. ফজলুল করিম সাজু বলেন, ‘এরশাদুল হক রামখানা ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি। তার বিরুদ্ধে মাদক ব্যবসার অভিযোগ আগে থেকেই ছিল। এর আগে এ নিয়ে পুলিশ সুপার তাকে সতর্কও করেছিলেন। কিন্তু সে এরপরও ইয়াবাসহ গ্রেপ্তার হয়েছে বলে জানতে পেরেছি।’

গত দুই মাস আগে এরশাদুল হক বিয়ে করেছেন জানিয়ে ফজলুল করিম সাজু বলেন, ‘আমরা তার বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেয়ার সুপারিশ করে কেন্দ্রে প্রতিবেদন পাঠাবো।’

বিষয়টি দুঃখজনক জানিয়ে নাগেশ্বরী উপজেলা ছাত্র লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. আনিছুর রহমান বলেন, ‘এরশাদুল হকের বিরুদ্ধে আগে থেকে মাদক সংশ্লিষ্টতার অভিযোগ রয়েছে। এর আগে তাকে থানা পুলিশের হেফাজত থেকে ছাড়িয়ে নেওয়া হয়েছিল।’

এক প্রশ্নের জবাবে উপজেলা ছাত্র লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘বিয়ে করার পর ছাত্র লীগের পদ এমনিতেই থাকে না। জেলা কমিটি না থাকায় আমরা তাৎক্ষণিক কোনও ব্যবস্থাও নিতে পারছি না। তবে এরশাদুল হক ও সফিকুল ইসলামকে সংগঠন থেকে বহি:ষ্কারের সুপারিশ করে কেন্দ্রে প্রতিবেদন পাঠানো হবে।’

মাদক সংশ্লিষ্টতার অভিযোগে গ্রেপ্তার ছাত্রলীগ নেতা এরশাদুল হককে পূর্বে সতর্ক করা হয়েছিল জানিয়ে কুড়িগ্রাম পুলিশ সুপার মো. মহিবুল ইসলাম খান বলেন,‘ গত রাতে তাকে ইয়াবা সহ গ্রেপ্তার করেছে ডিবি পুলিশ।’

ডিবি পুলিশ কুড়িগ্রামের অফিসার ইন চার্জ (ওসি) মোখলেছুর রহমান জানান, গ্রেপ্তার দুইজনের বিরুদ্ধে মাদক নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা দিয়ে আদালতে পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে।

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0203 seconds.