• ১০ মার্চ ২০২০ ২২:৩৭:৩৪
  • ১০ মার্চ ২০২০ ২২:৩৭:৩৪
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

রাবিতে অকৃতকার্য শিক্ষার্থীদের ভর্তি বাতিলের দাবি

ছবি : বাংলা

রাবি প্রতিনিধি :

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে চলতি শিক্ষাবর্ষে স্নাতক প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষায় ন্যূনতম পাশ তুলতে না পারলেও পোষ্য কোটায় সুযোগ পাওয়া শিক্ষার্থীদের ভর্তি বাতিলের দাবি জানিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীরা। একই সঙ্গে পরবর্তী সময়ে যাতে করে এমন ঘটনার পুনরাবৃত্তি না ঘটে, সে বিষয়েও কর্তৃপক্ষকে সতর্ক করা হয়েছে।

১০ মার্চ, মঙ্গলবার বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের সামনে মানববন্ধন করে এ দাবি জানান শিক্ষার্থীরা। 

এছাড়াও কোটায় আসন শূন্য থাকা সাপেক্ষে মেধাক্রম অনুযায়ী শিক্ষার্থী ভর্তি করা, ভর্তি পরীক্ষায় বিদ্যমান কোটার সংস্কার এবং ভর্তি প্রক্রিয়ায় মনিটরিংয়ের বাইরে প্রশাসনের অযাচিত হস্তক্ষেপ বন্ধ করাসহ সকল দাবি মানা হয়েছে জানিয়ে দ্রুত সময়ের মধ্যে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশেরও দাবি জানিয়েছেন শিক্ষার্থীরা।

মানববন্ধনে ইসলামের ইতিহাস বিভাগের মাস্টার্সের শিক্ষার্থী মাহমুদ সাকি বলেন, পাশ না করলেও পোষ্য কোটায় ৪৩ শিক্ষার্থীকে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি করার ঘটনা কেবল আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের নয় বরং পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য লজ্জার। যেখানে কৃষক-শ্রমিক তথা যাদের কষ্টের টাকায় এই বিশ্ববিদ্যালয় চলে, তাদের সন্তানরা প্রাণপণে লড়েও আসন সীমাবদ্ধতায় বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার সুযোগ পায় না। সেখানে পোষ্য কোটা নামক বাবা মায়ের ক্ষমতার জোরেই এই শিক্ষার্থীদের ভর্তির সুযোগ দেয়া হয়েছে। এটা পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় বিরোধী। নৈতিকতা বিরোধী। যা একটি বৈষম্যের সৃষ্টি করেছে।

প্রায় অর্ধ-শতাধিক শিক্ষার্থীর অংশগ্রহণে এই মানববন্ধনে বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার পরিষদ বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সাধারণ সম্পাদক মাজহারুল ইসলাম বলেন, প্রতিযোগিতার কারণে অনেক মেধাবী শিক্ষার্থীরও বিশ^বিদ্যালয়ে পড়ার সুযোগ হয় না। সেখানে পোষ্য কোটার নামে অকৃতকার্য শিক্ষার্থীরাও পাবলিক বিশ^বিদ্যালয়ের মতো জায়গায় পড়ার সুযোগ পাচ্ছে। এটা আমাদের সম্মানে আঘাত হানে। এমতাবস্থায় বিশ^বিদ্যালয় প্রশাসন ওই ৪৩ শিক্ষার্থীর ভর্তি বাতিল করবে, না হয় আমাদের ছাত্রত্ব বাতিল করবে।

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0705 seconds.