• বিদেশ ডেস্ক
  • ২৫ মার্চ ২০২০ ১৭:০৬:১৮
  • ২৫ মার্চ ২০২০ ১৭:০৬:১৮
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

করোনাকে পাত্তাই দিচ্ছেন না এই ৩ প্রেসিডেন্ট

ছবি : সংগৃহীত

করোনাভাইরাসকে মহামারি বলে আখ্যা দিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)। বিশ্বের ১৯৭টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে এই প্রাণঘাতী ভাইরাস। এ ভাইরাসে সারাবিশ্বে এখন পর্যন্ত মারা গেছেন ১৯,৬০৩ জন। আক্রান্ত হয়েছেন ৪৩৪,৫৯৫ জন। পৃথিবীর সব দেশের সরকারই করোনাকে প্রধান গুরুত্ব দিয়ে এটি ঠেকাতে কঠোর পদক্ষেপ নিচ্ছে।

কিন্তু ব্যতিক্রম যেন ব্রাজিল, মেক্সিকো ও নিকারাগুয়ার দেশের প্রেসিডেন্টরা। তারা করোনাকে পাত্তাই দিচ্ছেন না। অন্যান্য দেশে যেখানে তাদের নাগরিকদের ঘরে থাকতে বলছে সেখানে তারা উল্টো তাদের নাগরিকদের কাজ করে যেতে বলছেন।

সিএনএন’এর খবরে বলা হয়, ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট জায়ের বলসোনারো করোনাকে খুবই সামান্য ভাইরাস বলে অভিহিতি করেন। তিনি বলেন, ব্রাজিলিয়ানদের এই ভাইরাসে ভয় পাওয়ার কোনো কারণ নেই। মিডিয়া এটিকে বড় ভাইরাস বানাচ্ছে। 

মেক্সিকোর প্রেসিডেন্ট অ্যান্ড্রেস মানুয়াল লোপেজ করোনাভাইরাসের আশংকা সত্ত্বেও তাদের নাগরিকদের খাবার খেতে ঘরের বাইরে যেতে বলেছেন। 

নিকারাগুয়ার সরকারপ্রধান ড্যানিয়েল অর্টেগা, এই সংকটের মধ্যেও সব ধরনের রাজনৈতিক মিছিল ও সমাবেশ চালিয়ে যেতে বলেছেন। 

মেক্সিকোর প্রেসিডেন্ট অ্যান্ড্রেস প্রথমদিকে তাদের নাগরিকদের কোলাকুলি করতে নিষেধ করেন। পরে তিনি এক বার্তায় বলেন, এটি একটি ভুল ধারণা। সবার অবশ্যই কোলাকুলি করা উচিত। 

গত ১২ মার্চ যখন ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট জায়ের বলসোনারো করোনা পজিটিভ হন তখন অনেকে মনে করেছিলেন যে এবার অন্তত তিনি করোনাকে ভয় পাবেন। কিন্তু এর কয়েকদিন পরই এক টেলিভিশন ভাষণে করোনাকে ক্ষুদ্র ভাইরাস বলে অভিহিত করেন। 

পশ্চিমের দরিদ্রতম দেশ নিকারাগুয়া যেকোনো প্রাদুর্ভাবের বিরুদ্ধে লড়াই করতে সবচেয়ে বেশি খারাপ অবস্থানে রয়েছে। দেশটিতে এখন পর্যন্ত দুজন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে। তবে সেখানে সবচেয়ে ভয়ের কারণ দেশটির প্রেসিডেন্ট, যাকে কয়েক সপ্তাহে জনসম্মুখে দেখা যায়নি। সেখানকার নাগরিকদের জন্য এখন পর্যন্ত কোনো পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি।

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

Page rendered in: 0.0840 seconds.