• নিজস্ব প্রতিবেদক
  • ২৬ মার্চ ২০২০ ১০:১৩:৫৬
  • ২৬ মার্চ ২০২০ ১৩:৩০:১৫
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

করোনায় মৃত্যু ২১ হাজার ছাড়িয়েছে

ছবি : সংগৃহীত

চীনের উহানে প্রথম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হওয়ার তিন মাস এখনো পেরোয়নি। এরই মধ্যে বিশ্বজুড়ে ২১ হাজারেরও বেশি মানুষের প্রাণ কেড়েছে এ ভাইরাসটি। আর এতে আক্রান্তের সংখ্যা সাড়ে চার লাখ ছাড়িয়েছে।

আজ ২৬ মার্চ, বৃহস্পতিবার সকালে এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত ওয়ার্ল্ডওমিটার সূত্রে জানা গেছে, এ ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ৪ লাখ ৬৬ হাজার ৭৫৯ জনে দাঁড়িয়েছে। আর মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২১ হাজার ১৪৮ জনে। আক্রান্তদের মধ্যে ১ লাখ ১৩ হাজার ৮০৮ জন চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ হয়ে উঠেছেন।

গত ২৪ ঘণ্টায় ইতালিতেই সবচেয়ে বেশি ৬৮৩ জন মানুষের মৃত্যু হয়েছে। নতুন করে সংক্রমিত হয়েছেন ৫ হাজার ২১০ জন। এদের নিয়ে এ নিয়ে দেশটিতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৭৪ হাজার ৩৮৬ জন। আর মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৭ হাজার ৫০৩ জন, যা পৃথিবীর সর্বোচ্চ।

ইতালির পর ইউরোপের আরেক মৃত্যুপুরী হয়ে উঠেছে স্পেন। গত ২৪ ঘণ্টায় সেখানে প্রাণ হারিয়েছেন অন্তত ৬৫৬ জন মানুষ। নতুন আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় সাড়ে ৭ হাজার। এ নিয়ে সেখানে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৪৯ হাজার ৫১৫ জন, মৃত্যু হয়েছে ৩ হাজার ৬৪৭ জনের।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সতর্কতা সত্য করে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রেও করোনাভাইরাসের সংক্রমণ দ্রুত ছড়িয়ে পড়ছে। ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে ১০ হাজার ৪৮৬ জন নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছেন। এদিন মারা গেছেন ১৪২ জন। সেখানে এখন মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৬৫ হাজার ৩৪২। মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৯২২ জনে।

ভয়াবহ পরিস্থিতির মুখোমুখি হয়েছে ইতালির প্রতিবেশী ফ্রান্সও। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে ২৩১ জনের প্রাণ কেড়েছে ভাইরাসটি। নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ২ হাজার ৯২৯ জন। এদের নিয়ে সেখানে মোট মৃতের সংখ্যা ১ হাজার ৩৩১ জনে দাঁড়িয়েছে। আর আক্রান্তের সংখ্যা ২৫ হাজার ২৩৩ জন।

এছাড়া ইরানে গত ২৪ ঘণ্টায় ১৪৩ জন মানুষ মারা গেছেন। সেখানে নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছেন ২ হাজার ২০৬ জন। এদের নিয়ে দেশটিতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২৭ হাজার ১৭ জন। আর মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২ হাজার ৭৭ জনে।

উল্লেখ্য, গত ৩১ ডিসেম্বর চীনের হুবেই প্রদেশের রাজধানী উহান শহরে প্রথমবারের মতো করোনা ভাইরাস শনাক্ত হয়। উহানের একটি সামুদ্রিক খাদ্য ও মাংসের বাজার থেকে প্রাণঘাতী এই ভাইরাসটির উৎপত্তি হয়েছে বলে ধারণা করা হয়।

এরপর চীনের বিভিন্ন শহরসহ বিশ্বের বেশ কয়েকটি দেশে ভাইরাসটি দ্রুত ছড়িয়ে পড়ার প্রেক্ষিতে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বৈশ্বিক জরুরি স্বাস্থ্য সতর্কতা জারি করে।

প্রতিনিয়ত এই ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েই চলেছে। করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের শরীরে প্রাথমিক লক্ষণ হিসেবে শ্বাসকষ্ট, জ্বর, সর্দি, কাশির মত সমস্যা দেখা দেয়।

বাংলা/এসএ

আপনার মন্তব্য

Page rendered in: 0.0782 seconds.