• বিদেশ ডেস্ক
  • ৩১ মার্চ ২০২০ ১৮:৪৬:১০
  • ৩১ মার্চ ২০২০ ১৮:৪৬:১০
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

টানাটানির সংসার, তবু করোনার তহবিলে দান

পাঁচুগোপাল রায়। ছবি : সংগৃহীত

বয়স হয়েছে, অনেকদিন আগেই অবসরের বয়স পেরিয়েছে। কিন্তু আজো কলকাতার নদিয়ার পাঁচুগোপাল দাসকে পরিশ্রম করতে হয় সংসারের প্রয়োজন মেটাতে। তা সত্ত্বেও এই বিপদের দিনে রাজ্যবাসীর পাশে দাঁড়ালেন পাঁচুগোপাল। অভাব-অনটন সত্ত্বেও জমানো পাঁচ হাজার টাকা তুলে দিলেন মুখ্যমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে।

ভারতীয় গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়, নদিয়ার কৃষ্ণনগরের বাসিন্দা পাঁচুগোপাল রায়। চার জনের সংসারে উপার্জনকারী বলতে একমাত্র তিনি। তাই অবসরের পরও সংসার টানতে বিকল্প খুঁজতে হয় পাঁচু বাবুকে। বর্তমানে কৃষ্ণনগরে জেলা প্রশাসনিক ভবনের সামনে তিনি পানীয় জল জোগান দেন। তাতে মাসে সামান্য কিছু রোজগার হয়। তাতেই কোনো ক্রমে চলে সংসার। তা সত্ত্বেও বর্তমান পরিস্থিতিতে রাজ্যবাসীর পাশে দাঁড়ানোর ইচ্ছে হয়েছিল তার। সঙ্গে সঙ্গে উপায় খুঁজতে শুরু করেন। এরপর সোমবার নদিয়ার জেলাশাসক বিভু গোয়েলের হাতে তুলে দেন পাঁচ হাজার টাকার চেক।

তিনি বলেন, ‘জানি, আমার কাছে পাঁচ হাজার টাকা অনেক। আমার সামান্য আয়। কিন্তু গরিব মানুষদের জন্য আমারও কিছু করার ইচ্ছে হয়েছিল। তাই জেলাশাসকের হাতে মুখ্যমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে দেয়ার জন্য কিছু টাকা তুলে দিলাম।’

বিধায়ক গৌরীশংকর দত্ত, পুণ্ডরীকাক্ষ সাহা, কল্লোল খাঁ-সহ অনেকেই তাদের ব্যক্তিগত সংগ্রহ থেকে রাজ্যের ত্রাণ তহবিলে টাকা তুলে দিয়েছেন। সংসদ সদস্য মহুয়া মৈত্র তার কোটার টাকা থেকে দিয়েছেন পঞ্চাশ লক্ষ টাকা, শান্তনু ঠাকুর নদিয়ার দুটি বিধানসভার জন্য দিয়েছেন ১৬ লক্ষ টাকা।

সংশ্লিষ্ট বিষয়

কলকাতা করোনাভাইরাস

আপনার মন্তব্য

Page rendered in: 0.0754 seconds.