• বিদেশ ডেস্ক
  • ১৪ এপ্রিল ২০২০ ০১:৩০:০৩
  • ১৪ এপ্রিল ২০২০ ০১:৩৫:১৮
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

‘সোয়াইন ফ্লুর চেয়ে ১০ গুণ বেশি ভয়াবহ করোনাভাইরাস’

ফাইল ছবি

করোনাভাইরাসকে সোয়াইন ফ্লুর চেয়ে ১০ গুণেরও বেশি ভয়াবহ বলে অভিহিত করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)। নিশ্চিত করে তারা বলেছে, এক দশক আগে বিশ্বজুড়ে সোয়াইন ফ্লুর প্রাদুর্ভাব দেখা দিয়েছিল। এখন পরীক্ষায় করোনাভাইরাসকে তার চেয়ে ১০ গুণেরও বেশি ভয়াবহ দেখা গেছে।

২০০৯ সালের জানুয়ারি থেকে ২০১০ সালের আগস্ট পর্যন্ত বিশ্বের বিভিন্ন দেশে সোয়াইন ফ্লুর প্রাদুর্ভাব দেখা দেয়। তাতে আক্রান্ত হন কমপক্ষে ১৬ লাখ মানুষ। মারা যান ১৮ হাজার ৪৪৯ জন।

এ খবর দিয়ে লন্ডনের দ্য ইন্ডিপেন্ডেন্ট পত্রিকা লিখেছে, এখন করোনাভাইরাস সংক্রমণ নিয়ে সতর্কতা দিয়েছেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান কর্মকর্তা টেডরোস আধানম ঘেব্রেয়েসাস। তিনি বলেছেন, করোনাভাইরাস মহামারী বিশ্বকে গ্রাস করেছে।

সোয়াইন ফ্লু বা এইচ১এন১ বিশ্বের যে ক্ষতি করেছিল, যে পরিমাণ মানুষ মেরেছিল, তার দশগুণ বেশি ক্ষতি এবার করে দিয়েছে করোনাভাইরাস।

ঘেব্রেয়েসাস বলেছেন, অনেক দেশ থেকে এই ভাইরাসের পরিষ্কার চিত্র, তাদের আচরণ, কিভাবে তা থামানো যায় এবং কিভাবে এর প্রেক্ষাপটে ব্যবস্থা নেয়া যায়, তার তথ্যপ্রমাণ আসছে। আমরা জানি করোনাভাইরাসের বিস্তার খুব দ্রুতগতির। আরো জানি, এটা ভয়াবহ। ২০০৯ সালের ফ্লু মহামারির চেয়ে এটা ১০ গুণ ভয়াবহ। আমরা আরো জানি এই ভাইরাস দ্রুত বিস্তার লাভ করতে পারে বেশি মানুষ যেখানে সমবেত হয় সেসব স্থানে।

তিনি আরো বলেন, আমরা আরো জানি এই ভাইরাসের বিস্তার রোধে আমাদের আগেভাগে পরীক্ষা করা উচিত, আইসোলেশনে যাওয়া উচিত, প্রতিটি আক্রান্ত মানুষের সেবা দেয়া উচিত এবং প্রতিজন সংক্রমিত ব্যক্তিকে চিহ্নিত করা উচিত। আমরা আরো জানি, কিছু দেশে তিন থেকে চার দিনের মধ্যে আক্রান্তের হার দ্বিগুণ হচ্ছে। আরো দেখা গেছে যে হারে বিস্তার হয় এর, কমে তার চেয়ে ধীর গতিতে।

সংশ্লিষ্ট বিষয়

করোনাভাইরাস ডব্লিউএইচও

আপনার মন্তব্য

Page rendered in: 0.0716 seconds.