• নিজস্ব প্রতিবেদক
  • ০৪ মে ২০২০ ১১:৪৩:৩৮
  • ০৪ মে ২০২০ ১১:৪৩:৩৮
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

গাজীপুরে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ শিশু হত্যার আসামি নিহত

ফাইল ছবি

র‌্যাবের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে গাজীপুরে কোনাবাড়িতে শিশু আলিফ হোসেন হত্যা মামলার এক আসামি নিহত হয়েছেন। গতকাল ৩ মে, রবিবার রাতে কোনাবাড়ির কাশিমপুর জেলখানা রোড এ ‘বন্দুকযুদ্ধ’ হয়।

নিহত জুয়েল আহমেদ সবুজ শিশু আলিফ হত্যাকাণ্ডের পর থেকে পলাতক ছিলেন। তার বাড়ি নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলার পদিপাড়া এলাকায়।

শনিবার রাতে এই হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকার দায়ে সাগর নামে একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়। তার দেয়া তথ্যমতে সবুজকে আটক করতে গতকাল রাতে অভিযানে যায় র‌্যাব। এসময় সে র‌্যাবকে লক্ষ্য করে গুলি চালায়। আত্মরক্ষার্থে র‌্যাবও পাল্টা গুলি চালালে ঘটনাস্থলেই জুয়েল নিহত হন বলে জানান র‌্যাব-১ এর পোড়াবাড়ি ক্যাম্পের কোম্পানি কমান্ডার আব্দুল্লাহ আল মামুন।

গত ২৯ এপ্রিল গাজীপুর সিটি করপোরেশনের কোনাবাড়ী থানার পারিজাত আমতলা এলাকা থেকে শিশু আলিফ হোসেনকে অপহরণ করা হয়। পরে তাকে শ্বাসরোধে হত্যা করে নিজ বাসার তিন তলায় প্লাস্টিকের বস্তায় ভরে ঝুটের গুদামে ফেলে রাখা হয়। শনিবার দিবাগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে ওই গুদাম থেকে আলিফের মরদেহ উদ্ধার করে র‌্যাব ও পুলিশ।

ওইদিন র‌্যাবের হাতে আটক হওয়া সাগর জিজ্ঞাসাবাদে জানায়, কয়েকদিন আগে আলিফের বাবা ফরহাদ তার ভাড়াটিয়া সবুজকে থাপ্পড় মারেন। এর প্রতিশোধ নিতে সবুজ আলিফকে অপহরণের পর হত্যা করে।

গাজীপুর র‌্যাব-১ এর কোম্পানি কমান্ডার জানান, সাগরের দেয়া তথ্যমতে সবুজকে ধরতে গেলে বন্দুকযুদ্ধে তার মৃত্যু হয়। পরে তার মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়।

এ ঘটনায় র‌্যাবের দুই সদস্য আহত হয়েছেন এবং ঘটনাস্থল থেকে একটি বিদেশি পিস্তল ও গুলি উদ্ধার করা হয়েছে বলেও জানান এ র‌্যাব কর্মকর্তা।

বাংলা/এসএ/

আপনার মন্তব্য

Page rendered in: 0.0770 seconds.