• ফিচার ডেস্ক
  • ০৭ মে ২০২০ ১৫:৪৮:০৮
  • ০৭ মে ২০২০ ১৮:৫৭:৫০
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

লকডাউনে শরীর ফিট রাখার ৪ সহজ উপায়

ছবি : সংগৃহীত

আমরা সবাই এই বিখ্যাত উক্তিটার কথা জানি হয়তো। সেটা হচ্ছে, ‘আপনি যা খাচ্ছেন আপনি তেমনই।’ মহামারী চলাকালীনও একই কথা প্রযোজ্য। এই লকডাউনের সময় আমাদের যথাযথ খাবার গ্রহণ করা দরকার।

চাপের এ সময়ে আমাদের খাবার নিয়ে অবহেলা করা ঠিক নয়। সেই সাথে প্যাকেটযুক্ত এবং প্রক্রিয়াজাত খাবার গ্রহণ বাদ দেয়া দরকার। কারণ এটি প্রায়শই ভালোর চেয়ে ক্ষতিই বেশি করে থাকে। যাই হোক, স্বাস্থ্যকর খাদ্যে গ্রহণ করা এবং সচেতনভাবে ফিট হওয়ার উপায়গুলো আমাদের এই লকডাউনে অবশ্যই মেনে চলা দরকার।

এজন্য নিচের সহজ ৪টি উপায়ের কথা আপনাদের সামনে তুলে ধরছি।

১) প্রক্রিয়াজাত খাবার বাদ দিন :

প্রক্রিয়াজাত খাবার বাদ দিন এখন। কারণ এসব খাবারে প্রচুর পরিমাণে প্রিজারভেটিভ, ফ্যাট, চিনি, সোডিয়াম আছে। এর পুষ্টিগুণও কম। এর পরিবর্তে প্রোটিন সমৃদ্ধ, স্বাস্থ্যকর শর্করা এবং ফাইবারযুক্ত প্রচুর পরিমাণে ঘরে রান্না করা খাবার খান। এতে শরীর ভালো থাকবে।

২) চিনি এবং মিষ্টি বাদ দিন :

অতিরিক্ত চিনি ওজন বাড়ার অন্যতম বড় কারণ। আপনার খাবার থেকে পরিশোধিত চিনি এবং চিনি যুক্ত খাবার বাদ দিন। এর পরিবর্তে, আপনি সুগারফ্রি, স্বল্প-ক্যালরিযুক্ত মিষ্টি জাতীয় স্বাস্থ্যকর বিকল্পপন্থা অবলম্বন করতে পারেন। কারণ এতে কোন ক্যালরি নেই। আবার খেতে গেলে চিনির মতোই একইরকম মিষ্টি লাগে।

তাই কম চিনি এবং মিষ্টিজাতীয় খাবার গ্রহণ ক্যালরির পরিমাণ কমিয়ে আনার এক সহজ উপায়। এতে একদিকে আপনার ওজন কমবে। অন্যদিকে শরীরও ফিট থাকবে। নানাবিধ রোগ থেকেও তখন আপনি মুক্ত থাকতে পারবেন সহজেই।

৩) পানি পান করুন পর্যাপ্ত :

প্রতিদিন যথেষ্ট পরিমাণে পানি পান করুন। পানি শরীরকে চাঙ্গা রাখে। শরীর থেকে বিসাক্ত উপাদান বের করে দেয়। এজন্য প্রতিদিন সর্বনিম্ন ৮ গ্লাস পানি পান করা আবশ্যক। সেই সাথে কোল্ড ড্রিংকস এবং অতিরিক্ত কফি কাওয়া বাদ দিন।

আপনি দিনে ২ কাপ কফি খেতে পারেন। আর কফির পরিবর্তে চাইলে ভেষজ চা এবং ফ্রেস জুস খেতে পারেন।

৪) চিপস খাওয়া বাদ দিন :

আমরা অনেক সময় কাজ করার সময় বা টেলিভিশন শো দেখার সময় চিপস খেয়ে থাকি।সেটা না করে বরং তার পরিবর্তে আপনার খাবারের একটা পরিকল্পনা করুন। সময় মতো তা খান। শুকনো ফল, তাজা ফল, জলপাই, কাটা গাজর, খেজুর ইত্যাদি খাবার স্বাস্থ্যকর জাঙ্ক ফুডের বিকল্প হিসাবে খেতে পারেন।

আপনার ক্ষুধা লাগলে সময়মতো খেয়ে নিন। কারণ সময়মতো না খেলে আপনার কাজ এবং উৎপাদনশীলতার উপর তা নেতিবাচক প্রভাব ফেলতে পারে।

আপনার মন্তব্য

Page rendered in: 0.0774 seconds.