• বিদেশ ডেস্ক
  • ০৯ মে ২০২০ ০০:২৭:৫৩
  • ০৯ মে ২০২০ ০১:৫৫:১৭
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

করোনায় আফ্রিকায় ঝরে যেতে পারে লাখো জীবন

ছবি : সংগৃহীত

ইউরোপে এখনো অবধি করোনায় মৃতের সংখ্যা সবচেয়ে বেশি। যদিও দেশ হিসেবে আমেরিকা একক সর্বোচ্চ অবস্থায় আছে মৃত্যুর হার বিবেচনায়। তবে, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ধারণা করছে সামনে এ রোগটি আফ্রিকা অঞ্চলে প্রায় ২ লাখের মতো মানুষের মৃত্যু ঘটাতে পারে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার এই সতর্ক বার্তাটি এসেছে আফ্রিকার সর্বাধিক জনবহুল দেশ নাইজেরিয়া, দক্ষিণ আফ্রিকা এবং আইভরি কোস্টসহ অন্য দেশগুলো তাদের লকডাউন ব্যবস্থা শিথিল করতে শুরু করার ঘোষণা দেয়ার মুহূর্তে।

সমীক্ষায় দেখা গেছে, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা মনে করছে, আফ্রিকান অঞ্চলে ২ কোটি ৯০ লাখ থেকে ৪ কোটি ৪০ লাখ মানুষ মহামারী শুরুর প্রথম বছরে সংক্রামিত হতে পারে। একই সময়ে ৮৩ হাজার থেকে প্রায় ২ লাখ মানুষ মারা যেতে পারে বলে সংস্থাটি সতর্ক করেছে।

এই ধারণা ‘পূর্বাভাস মডেলিং’ এর উপর ভিত্তি করে করা হয়েছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা আফ্রিকান অঞ্চলের ৪৭ টি দেশের ১০ কোটি মানুষের উপর তাদের এ মডেলিং ব্যবহার করেছে। তবে লিবিয়া, তিউনিসিয়া, মরক্কো, ইরিত্রিয়া, সুদান, সোমালিয়া এবং জিবুতি এর অন্তর্ভুক্ত নয়।

এ অবধি পুরো আফ্রিকা মহাদেশ জুড়ে ২ হাজারেরও বেশি করোনভাইরাস মৃত্যুর ঘটনা আফ্রিকার রোগ নিয়ন্ত্রণ কেন্দ্র দ্বারা রেকর্ড করা হয়েছে।

লেসোথো বাদে প্রতিটি আফ্রিকার দেশেই করোনার অস্তিত্ব পাওয়া গেছে।

এর মধ্যে দক্ষিণ আফ্রিকায় সবচেয়ে বেশি করোনা আক্রান্তের সংখ্যা রেকর্ড করা হয়েছে। এ সংখ্যা ৮২০০ এবং মারা গেছে ১৬০ জনের মতো। তবে আলজেরিয়ায় সবচেয়ে বেশি মারা গেছে ৪৮৩ জন। এ অবস্থায় বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা আবারো ‘পরীক্ষা, ট্রেসিং, আইসোলেশান এবং চিকিৎসা’ এর উপরে জোর দেয়ার কথা বলেছে।

সংশ্লিষ্ট বিষয়

আফ্রিকা করোনাভাইরাস

আপনার মন্তব্য

Page rendered in: 0.0679 seconds.