• নিজস্ব প্রতিবেদক
  • ১১ মে ২০২০ ১৭:৪৮:৪৪
  • ১১ মে ২০২০ ১৭:৪৯:৫৩
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

তুচ্ছ ঘটনায় পিটিয়ে হত্যা, আটক ৩

ছবি : বাংলা

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি :

কুড়িগ্রামের উলিপুরে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে এক ব্যক্তিকে পিটিয়ে হত্যা করার অভিযোগ উঠেছে। এ সময় তাকে বাঁচাতে স্ত্রী ও সন্তান এগিয়ে আসলে তাদেরকেও এলোপাতাড়ি মারধর করে গুরুত্বর আহত করা হয়। ১১ মে, সোমবার এ ঘটনায় নিহতের স্ত্রী বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়ের করলে পুলিশ ৩ জনকে আটক করে।

নিহতের স্বজন ও এজাহার সূত্রে জানা গেছে, ০৯ মে, শনিবার বিকেলে উপজেলার ধামশ্রেনী ইউনিয়নের যাদুপোদ্দার গ্রামের আনছার আলীর পুত্র মুকুল মিয়ার (৪২) সাথে প্রতিবেশি সাহাব উদ্দিনের পুত্র মিশন মিয়ার (২৮) ক্রিকেট খেলার বল শরীরে লাগার ঘটনাকে কেন্দ্র করে বাকবিতন্ডা হয়। এরপর থেকে সাহাব উদ্দিনের পক্ষের লোকজন মুকুল মিয়াকে বিভিন্ন ভাবে হুমকি দিয়ে আসছিলেন। এরই জের ধরে রবিবার বিকেলে উলিপুর বাজার থেকে মুকুল বাড়ি ফেরার পথে সাহাব উদ্দিনের বাড়ির সামনে পৌঁছলে তার পক্ষের লোকজন দলবদ্ধ হয়ে মুকুলের ওপর হামলা চালায়। খবর পেয়ে মুকুল মিয়ার স্ত্রী ও পরিবারের লোকজন তাকে উদ্ধারের জন্য এগিয়ে আসে। এ সময় তাদেরকেও এলোপাতাড়ি মারধর করে গুরুত্বর আহত করা হয়।

আরো জানা গেছে, পরে স্থানীয় লোকজন আহতদের মুমূর্ষ অবস্থায় তাদেরকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। ওই দিন রাত দুইটার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মুকুল মিয়া মারা যান। তার মৃত্যুর খবর এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে উত্তেজিত জনতা সাহাব উদ্দিনের বাড়ি-ঘর ভাংচুর করে লুটপাট চালায়। বর্তমানে নিহতের স্ত্রী বিউটি বেগম (৩৫) ও পুত্র বিদ্যুৎ মিয়া (২০) গুরুত্বর আহত অবস্থায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

এ ঘটনায় সোমবার দুপুরে নিহতের স্ত্রী বাদী হয়ে ১৬ জনের নামে এবং অজ্ঞাতনামা ১০ থেকে ১১ জনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা করে। এরপর ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে সাহাব উদ্দিনের স্ত্রী বকুল বেগমসহ ৩ জনকে আটক করে পুলিশ।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. মাঈদুল ইসলাম বলেন, গুরুত্বর আহত অবস্থায় মুকুল মিয়াকে সন্ধ্যায় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। কিন্তু মাথায় অতিরিক্ত রক্ত ক্ষরণের কারনে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাতেই তার মৃত্যু হয়।

উলিপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মোয়াজ্জেম হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ‘নিহত মুকুল মিয়ার মরদেহ ময়না তদন্তের জন্য কুড়িগ্রাম মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। এ ঘটনায় তিনজনকে আটক করা হয়েছে। বাকী আসামীদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।’

বাংলা/সিকেএস/এনএস

সংশ্লিষ্ট বিষয়

হত্যা কুড়িগ্রাম

আপনার মন্তব্য

Page rendered in: 0.0712 seconds.