• নিজস্ব প্রতিবেদক
  • ১১ মে ২০২০ ২২:০২:২৬
  • ১১ মে ২০২০ ২২:০২:২৬
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

ছেলের সামনে মাকে বিবস্ত্র করে ছবি তুলে চাঁদাবাজি, গ্রেপ্তার ৪

ছবি: সংগৃহীত

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলায় ছেলের সামনে এক নারীকে বিবস্ত্র করে আপত্তিকর অবস্থায় ছবি তুলে চাঁদাবাজির অভিযোগ করেন হোসনা বেগম নামের একজন নারী। এ বিষয়ে  নবীনগর থানায় চাঁদাবাজি ও পর্নোগ্রাফি আইনে কয়েকজনকে আসামি করে মামলাও দায়ের করেন অভিযোগকারী নারী।

স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, উপজেলার শ্যামগ্রাম ইউনিয়নের বাসিন্দা ইউসুফ মিয়ার মেয়ে হোসনা বেগমের সাথে তার দুবাই প্রবাসী স্বামীর বেশ কিছুদিন ধরে মনোমালিন্য চলছিলো। সে কারণে হোসনা বেগম তার সন্তানকে নিয়ে বাবার বাড়ি চলে আসে। সে বিরোধ মিটাতে শশুরবাড়ির একজন আত্মীয় (সম্পর্কে দেবর) আলোচনা করতে তাদের বাড়ি আসে। ইফতারের পর তারা কথা বলছিলো। এ সময় স্থানীয় কয়েকজন নেতা ঘরে ঢুকে তাদের দু’জনকে মারধর করে। এক পর্যায়ে সন্তানের সামনেই তাদের বিবস্ত্র করে জড়িয়ে ধরিয়ে আপত্তিকর অবস্থায় ছবি তুলতে বাধ্য করা হয়। পরে তাদের ঘর থেকে শ্যামগ্রাম বাজারে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নাজিম উদ্দিন ধনুর নেতৃত্বে সালিশ করে দু’জনকে এক লাখ ২৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। যার মধ্যে ৪০ হাজার টাকা নগদ ও বাকি টাকা এক সাত দিনের মধ্যে পরিশোধের করতে বলা হয়। পরে সাদা কাগজে স্বাক্ষর রেখে তাদের ছেড়ে দেয়া হয়।

এ বিষয়ে নবীনগর থানা্র ওসি রঞ্জিত রায় বাংলা'কে বলেন, এ ধরণের একটি অভিযোগ পেয়েছি। পাঁচজনকে আসামি করে দুই ধারায় চাঁদাবাজি ও পর্নোগ্রাফি আইনে মামলা হয়েছে। অভিযোগকারীর নাম হোসনা বেগম। ইতমধ্যে ৪ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। চারজন হলো- অঞ্জন দেব, দেলোয়ার, বোরহান উদ্দিন, মোঃ জাহিদুল। একজন আসামি পলাতক রয়েছে। তাকে ধরার জন্য চেস্টা চলছে।

তিনি আরো বলেন, অভিযোগে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নাজিম উদ্দিন ধনুর নাম দেখিনি। তবে গ্রেপ্তারকৃত আসামিদের মধ্যে একজন বর্তমান মেম্বার বোরহান উদ্দিন রয়েছেন।

আপনার মন্তব্য

Page rendered in: 0.0750 seconds.