• ক্রীড়া ডেস্ক
  • ১৩ মে ২০২০ ১৯:৩১:৩৫
  • ১৩ মে ২০২০ ১৯:৩১:৩৫
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

নিজের সন্তানকে হত্যা করে ফুটবলার বাবা দোষ দিলেন করোনার

ছবি: সংগৃহীত

কিছু কিছু বাস্তবতা সিনেমার গল্পকেও হার মানায়। সিনেমায় অনেক সময় দেখা যায় কাউকে হত্যা করে আত্মহত্যা বলে চালিয়ে দেয়া হয়। কিন্তু তুরস্কের এই ঘটনা সিনেমাকেও হার মানাবে। নিজের পাঁচ বছরের ছোট্ট ছেলেকে সহ্য করতে না পেরে শাশ্বরোধ করে হত্যা করেন বাবা। আবার সেই হত্যাকে করোনায় মৃত্যু বলে চালিয়ে দিতে চেয়েছিলেন। 

অভিযুক্ত এই বাবা তুরস্কের একজন ফুটবলার। নাম সিভহার তোকতাস। ৩২ বছরের এ খেলোয়াড় ইলদ্রিমস্পোর ক্লাবের হয়ে খেলেন। চাঞ্চল্যকর এই  ঘটনাটি গত ২৩ এপ্রিলের, সেদিন পাঁচ বছরের ছোট্ট কাসিম ঘুমিয়ে ছিল, সেই সময় বালিশ চাপা দিয়ে ছেলে কাসিমকে হত্যা করেন বাবা। পরে ছেলের সেই লাশ নিয়ে বুরসা শহরের একটি হাসপাতালে যান তিনি, চিকিৎসকদের বলেন করোনার কারণে মারা গেছে তাঁর ছেলে। যেহেতু শাশ্ববন্ধ হয়ে মারা গেছে, তাই চিকিৎসারাও তাঁর কথা বিশ্বাস করে নেন।

ডাক্তারদের ফাঁকি দিতে পারলেও নিজের বিবেকের কাছে হার মানেন তোকতাস। তাই তো হত্যা করার কয়েকদিন পরই নিজ থেকে পুলিশের কাছে ধরা দেন তিনি।

এইস নিউজের বরাত দিয়ে পুলিশকে তোকতাস বলেন, আমি ওকে বালিশ চাপা দিয়ে মেরেছি। টানা ১৫ মিনিট বালিশ চেপে ধরে রেখেছিলাম। আমার ছেলে তখন বাঁচার জন্য অনেক চেষ্টা করে। এক সময় সে নিরব হয়ে যায়। নড়াচড়া বন্ধ করে দেয়। এরপর কেউ যাতে সন্দেহ না করে তাই আমি ডাক্তারের কাছে নিয়ে যাই।  

তিনি আরো বলেন, আমি আমার ছোট ছেলেকে কখনোই সহ্য করতে পারতাম না। জন্ম থেকেই ওকে আমার ভালো লাগতো না। আমি ওকে পছন্দ করতাম না, ছেলেকে মারার পিছনে এটাই একমাত্র কারণ। আমার মানসিক কোন সমস্যা নেই।

সন্তান হত্যার দায়ে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড হতে পারে এই ফুটবলারের।

বাংলা/এনএন/আরএ 

আপনার মন্তব্য

Page rendered in: 0.0900 seconds.