• বিদেশ ডেস্ক
  • ১৫ মে ২০২০ ১৪:৫২:১৯
  • ১৫ মে ২০২০ ১৪:৫২:১৯
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

মৌসুমী ইনফ্লুয়েঞ্জার চেয়ে ১০ গুণ বেশি মানুষ মারছে কোভিড-১৯: গবেষণা

ফাইল ছবি

সাধারণ মৌসুমী ইনফ্লুয়েঞ্জার (Seasonal flu) চেয়ে কোভিড-১৯ কতটা মারাত্মক তা নিয়ে এতদিন নানা ধরণের ধারণা প্রচলিত থাকলেও -ছিলো না কোনো বৈজ্ঞানিক গবেষণা। ফলে ভাইরাসঘটিত এ দুটো রোগের তুলনা করতে গেলে আমাদেরকে আগে হিমশিম খেতে হতো। সাম্প্রতিক একটা গবেষণার ফলে এখন থেকে সে সমস্যা অনেকটাই কেটে গেলো।

গবেষণা বলছে, কোভিড-১৯ সাধারণ মৌসুমী ইনফ্লুয়েঞ্জার চেয়ে কমপক্ষে ১০ গুণ বেশি মানুষের মৃত্যু ঘটাচ্ছে। JAMA ইন্টারনাল মেডিসিন এ বৃহস্পতিবার প্রকাশিত একটি গবেষণা নিবন্ধে এমন তথ্য জানানো হয়েছে।

Worldometer.info এর পরিসংখ্যান ব্যবহার করে গবেষকরা লক্ষ করেছেন যে নতুন করোনাভাইরাস, সার্স-কোভ-২ দ্বারা সৃষ্ট এই রোগটি ২১ এপ্রিল অবধি আমেরিকাতে ১৪,৪৭৮ জনের মৃত্যু ঘটিয়েছে। আর এপ্রিলের শেষ সপ্তাহে মারা গেছে ১৫,৪৫৫ জন।

বিপরীতভাবে, শীত মৌসুমে আমেরিকার রোগ নিয়ন্ত্রণ ও প্রতিরোধ কেন্দ্রের (সিডিসি) ২০১৫ থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত পরিসংখ্যান পর্যালোচনার ভিত্তিতে জানা যায়, সেখানে সাধারণ সপ্তাহে ফ্লুজনিত কারণে আমেরিকানদের ৩৫০ থেকে ১৬০০ জন মারা যায়।

বিশেষজ্ঞরা বলেছিলেন যে, এ দুটো ভাইরাসের প্রভাবের মধ্যে পরিষ্কার পার্থক্যের কারণে আমেরিকানদের কোভিড এর ভয়াবহতা সম্পর্কে সতর্ক করা এবং চলমান মহামারীজনিত জনস্বাস্থ্যের বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থয় গ্রহণে সহায়তা করা।

সিডিসি জানিয়েছে, গত শীতকালে প্রায় ৩৫ লাখ আমেরিকান ফ্লুতে আক্রান্ত হয়েছিল এবং তাদের মধ্যে ৩০ হাজার এরও কম মারা গেছে। অবশ্য মৌসুমী ভাইরাসের ক্ষেত্রে কেবলমাত্র একটি ক্ষুদ্র অংশকেই পরীক্ষার দ্বারা নিশ্চিত করা হয়। যার অর্থ হচ্ছে, উক্ত গণনা অনুমানভিত্তিক।

ফ্লুতে আক্রান্ত মানুষের সংখ্যা, ফ্লুজনিত কারণে ডাক্তার দেখানো, ভাইরাস আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হওয়া, যে মৃত্যুর কারণ হয়ে থাকে এবং এই আক্রান্তের উপরে ইনফ্লুয়েঞ্জা ভ্যাকসিনের প্রভাব কতটা পড়েছে তা নির্ধারণ করতে সিডিসি একটা গাণিতিক মডেল ব্যবহার করে থাকে। সেই মডেলের সূত্রেই মৌসুমী ফ্লু ভাইরাসের এই আক্রান্ত ও মৃত্যুর তথ্য জানা যায়।

জন হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের সর্বশেষ পরিসংখ্যান দেখা গেছে যে, গত বৃহস্পতিবার অবধি প্রায় ১৪ লাখ আমেরিকান নতুন করোনভাইরাসতে আক্রান্ত হয়েছে এবং প্রায় ৮৫ হাজার মারা গেছে।

জন হপকিন্সের তথ্য কোভিড -১৯ এ নিশ্চিত হওয়া আক্রান্তের সংখ্যা এবং সারা দেশের কাউন্টি এবং রাজ্য স্বাস্থ্য বিভাগ থেকে এই রোগের ফলে মৃত্যুজনিত রিপোর্টের উপর ভিত্তি করে করা হয়েছে।

সরকারি কর্মকর্তারা অবশ্য কোভিড -১৯ এর প্রভাবকে মৌসুমী ইনফ্লুয়েঞ্জার সাথে তুলনা করে চলেছেন।

২১ শে এপ্রিল অবধি শেষ হওয়া সপ্তাহে আমেরিকাতে বিগত সাতটি শীতের মৌসুমে ইনফ্লুয়েঞ্জায় মৃত্যুর যে শীর্ষ সপ্তাহ সেটার তুলনায় কোভিড-১৯ মৃত্যুর পরিমাণ সাড়ে ৯ গুণ থেকে ৪৪.১ গুণ বেশি ছিল।

আর এপ্রিল ১১ তে শেষ হওয়া সপ্তাহে সিডিসিতে রিপোর্ট করা কোভিড-১৯ মৃত্যুর সংখ্যাটি ২০১২-২০ ফ্লু মৌসুমের ‘আপাত সর্বোচ্চ সপ্তাহ’ এ ইনফ্লুয়েঞ্জাজনিত মৃত্যুর চেয়ে ১৪.৪ গুণ বেশি বলে গবেষকরা জানিয়েছেন।

তবে, সিডিসি তার কোভিড-১৯ এ মৃত্যুর পরিসংখ্যান সংশোধন অব্যাহত রেখেছে বলে গবেষকরা বলেছেন। সেটা শেষ হলে ইনফ্লুয়েঞ্জায় মৃত্যুর সাথে কোভিড-১৯ এ মৃত্যুর অনুপাত ‘সম্ভবত বৃদ্ধি পেতে পারে’ বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন গবেষকরা।

আপনার মন্তব্য

Page rendered in: 0.0950 seconds.