• বিদেশ ডেস্ক
  • ১৯ মে ২০২০ ১১:০৫:৪৯
  • ১৯ মে ২০২০ ১১:০৬:৫৭
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

প্রতিদিন হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন খাচ্ছি : ট্রাম্প

ডোনাল্ড ট্রাম্প। ফাইল ছবি

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের (কেভিড-১৯) চিকিৎসায় হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন ব্যবহারের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। এরপরও নিয়মিত হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন খাচ্ছেন বলে জানালেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। মূলত ম্যালেরিয়া রোগের চিকিৎসায় এই ওষুধ ব্যবহার করা হয়। আর এক্ষেত্রে তা দারুণ কার্যকরী।

হোয়াইট হাউসে সাংবাদিকদের সঙ্গে প্রশ্নোত্তর পর্বের সময় নিজের থেকেই ডোনাল্ড ট্রাম্প এ কথা জানান। রেস্তোঁরা ব্যবসায়ীদের সঙ্গে একটি বৈঠক করেন ট্রাম্প। করোনা পরিস্থিতিতে এই ব্যবসায় কী প্রভাব পড়ছে তা জানার জন্যই এই বৈঠকের আয়োজন করা হয়েছিল। এমন সংবাদ প্রকাশ করেছে নিউজ এইট্টিন।

এ সময় হঠাৎ করেই ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেন, ‘আমি হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন নিচ্ছি। আমি গত দেড় সপ্তাহ ধরে এই ওষুধ নিচ্ছি। প্রতিদিন একটি করে ওষুধ খাচ্ছি।’

সম্প্রতি করোনায় আক্রান্ত রোগীর চিকিৎসায় এই ওষুধের সফল প্রয়োগ হয়েছিল। এরপরেই প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প এই ওষুধের ব্যবহারের ওপর জোর দিয়েছিলেন। কিন্তু তারপর এই ওষুধ থেকে সেভাবে কোনো সাফল্য পাওয়া যায়নি।

এদিকে দেশটির দ্য ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিসট্রেশন (এফডিএ) এই ওষুধের ব্যবহারের বিরুদ্ধে নির্দেশিকা জারি করেছিল। গত ২৪ এপ্রিলে এ সংক্রান্ত একটি বিবৃতি জারি করে সংস্থাটি।

ওই বিবৃতে এফডিএ জানায়, এই ওষুধ থেকে হার্টের গতিতে বিভিন্নরকমের অসুবিধা হচ্ছে। তাই এই সতর্কতা জারি হচ্ছে। হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন অথবা ক্লোরোকুইনের ব্যবহারে করোনা রোগীরা এই অসুবিধার শিকার হয়েছিলেন।

হোয়াইট হাউসের এক কর্মী করোনা পজিটিভ হয়। এরপর থেকে ৭৩ বছর বয়স্ক এই মার্কিন প্রেসিডেন্টের প্রতিদিন করোনা পরীক্ষা করা হচ্ছে। তিনি হোয়াইট হাউসের চিকিৎসকের কাছে জানতে চান, তিনি কি এই ওষুধ খেতে পারেন- এর জবাবে তার চিকিৎসক জানান, ‘তিনি যদি ভালো মনে করেন তাহলে খেতে পারেন।’

প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প নিজে যে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন সেখান থেকে তাকে সরানো অসম্ভব। যা একাধিক ঘটনায় প্রমাণিত হয়েছে। করোনা মহামারীর সময়েও কিছুতেই মাস্ক ব্যবহার করেন না তিনি। যা নিয়ে দেশটিতে অনেক সমালোচনাও হয়েছে।

প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প আরো জানান, ‘ওনার সঙ্গে একাধিকবার আলোচনার পর এই সিদ্ধান্তে পৌঁছেছি- এই ওষুধের কিছু সাইড এফেক্ট বাদ দিলে এটা করোনার প্রতিরোধকারী ওষুধ হিসেবে ভালো কাজ করে।’

এদিকে সিনেটর ও ডেমোক্র্যাটিক দলের নেতা চুক শুমার জানান, ‘হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন এভাবে নেয়াটা অত্যান্ত ভয়ানক। এভাবে এই ওষুধ খেয়ে তিনি জনগণকে মিথ্যা আশা দেখাচ্ছেন।’

বাংলা/এনএস

আপনার মন্তব্য

Page rendered in: 0.0731 seconds.