• বিদেশ ডেস্ক
  • ২২ মে ২০২০ ১৫:২৬:০৩
  • ২২ মে ২০২০ ১৫:২৬:০৩
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

এবার হংকং নিয়ে চীনের প্রতি মার্কিন কড়া হুশিয়ারি

ফাইল ছবি

মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তর বৃহস্পতিবার হংকংকে আধাস্বায়ত্তশাসিত রাখার প্রতিশ্রুতি থেকে চীন মুখ ফিরিয়ে নিয়েছে বলে চীনকে অভিযুক্ত করে বিবৃতি দিয়েছে। তারা বলেছে, বেইজিং জাতীয় নিরাপত্তা আইন পাশ করলে তা কার্যকরভাবে হংহং এ বিরোধী কার্যক্রমকে সীমিত করবে। এতে এলাকাটা চূড়ান্তভাবে অস্থিতিশীল হয়ে উঠতে পারে বলেও বিবৃতিতে আশঙ্কা প্রকাশ করা হয়।

স্টেট ডিপার্টমেন্টের মুখপাত্র মরগান অর্টাগাস চীনকে ১৯৮৪ সালে স্বাক্ষরিত দ্বিপাক্ষিক চুক্তির কথা স্মরণ করিয়ে দিয়ে বলেছেন, সেখানে হংকং এর ‘উচ্চ মাত্রার স্বায়ত্তশাসনের’ গ্যারান্টি দেয়ার কথা বলা হয়েছে।

অর্টাগাস বলেন, ‘আমরা বেইজিংকে চীন-ব্রিটিশ যৌথ ঘোষণাপত্রের প্রতিশ্রুতি ও দায়বদ্ধতার প্রতি সম্মান জানানোর আহ্বান জানাচ্ছি।’

অর্টাগাস বলেছেন, ‘এই প্রতিশ্রুতি হংকংয়ের আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে বিশেষ মর্যাদা রক্ষার মূল চাবিকাঠি এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের হংকংয়ের সাথে আচরণ তার আইনের সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ।’

সাউথ চায়না মর্নিং পোস্ট এর আগে তাদের প্রকাশিত প্রতিবেদনে বলেছে বর্তমান এই আইনটি হংকংয়ের বিদ্যমান নিজস্ব আইনকে লঙ্ঘন করবে। এই আইনে সেমি-স্বায়ত্তশাসিত শহরটিতে 'রাষ্ট্রদ্রোহমূলক' কর্মকাণ্ড নিষিদ্ধ করার কথা রয়েছে। আইন সংক্রান্ত এ প্রস্তাবটি আইনসভার বার্ষিক অধিবেশনের প্রথম দিন শুক্রবার জাতীয় কংগ্রেসে (এনপিসি) আনুষ্ঠানিকভাবে প্রবর্তিত হবে।

এনপিসির মুখপাত্র ঝাং ইয়েসুই বৃহস্পতিবার বেইজিংয়ের একটি সংবাদ সম্মেলনে নিশ্চিত করেছেন যে আইনসভা ‘হংকংয়ের বিশেষ প্রশাসনিক অঞ্চলে জাতীয় সুরক্ষার জন্য একটি উপযুক্ত আইনী এবং কার্যকরকর ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠা’ সংক্রান্ত সিদ্ধান্ত বিবেচনা করবে।

এদিকে মার্কিন মুখপাত্র অর্টাগাস বলেছেন, বেইজিংয়ের এমন পদক্ষেপ ‘চীন-ব্রিটিশ যৌথ ঘোষণাপত্রে জনগণের প্রজাতান্ত্রিক প্রতিশ্রুতি ও বাধ্যবাধকতাগুলোকে হ্রাস করবে’। মার্কিন সুরের সাথে তাল মিলিয়ে ইউরোপ এবং ব্রিটেনও হংকংয়ের সমর্থনে বিবৃতি দিয়েছে।

চীনের জাতীয় কাউন্সিলে এ আইন পাশ হলে হংকং চূড়ান্তভাবে অস্থিতিশীল হয়ে উঠবে বলে দাবি করে অর্টাগাস বলেছেন, ‘জনগণের ইচ্ছাকে প্রতিফলিত করে না এমন জাতীয় সুরক্ষা আইন আরোপ করার যে কোনো প্রচেষ্টা চূড়ান্তভাবে হংকংকে অস্থিতিশীল করে তুলবে।’ এবং তা হলে যা হবে তা হলো যুক্তরাষ্ট্র এবং আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় এর তীব্র নিন্দা জানাবে বলে বিবৃতিতে হুশিয়ারি উচ্চারণ করা হয়।

বিজ্ঞাপন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

চীন আমেরিকা

আপনার মন্তব্য

Page rendered in: 1.7116 seconds.