• নিজস্ব প্রতিবেদক
  • ০১ জুন ২০২০ ১৮:৩০:১১
  • ০১ জুন ২০২০ ১৮:৩০:১১
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

ভুয়া উপ-সচিব পরিচয়ে হাতিয়েছেন ৭৫ লাখ, টার্গেট ধনী মেয়ে

মো. গোলাম মোস্তফা। ছবি: সংগৃহীত

ভুয়া উপ-সচিব পরিচয় দিয়ে বিয়ের কথা বলে পাঁচজনের কাছে ৭৫ লাখ টাকা হতিয়ে নেয়ার অভিযোগ উঠেছে এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে। অভিযুক্ত ওই প্রতারকের নাম মো. গোলাম মোস্তফা (৩৮)। ৩১ মে, রবিবার রাতে রাজধানীর উত্তরা এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগের (সিআইডি) সিরিয়াস ক্রাইম স্কোয়াডের একটি বিশেষ দল এই অভিযান পরিচালনা করে। তিনি নিজেকে ২৪তম বিসিএস প্রশাসন ক্যাডারের একজন কর্মকর্তা ও সচিবালয়ে কর্মরত বলে পরিচয় দিতেন।

সিরিয়াস ক্রাইম স্কোয়াডের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রাজীব ফারহানের তত্ত্বাবধানে সহকারী পুলিশ সুপার মো. সুমন রেজার নেতৃত্বে একটি টিম ওই অভিযান চালিয়ে উত্তরা ১১নং সেক্টরের একটি অ্যাপার্টমেন্ট বিল্ডিং থেকে গোলাম মোস্তফা গ্রেপ্তার করে।

তদন্তে জানা গেছে, প্রতারক গোলাম মোস্তফা নিজেকে কখনো ম্যাজিস্ট্রেট আবার কখনো উপ-সচিব অথবা সচিবালয়ের পদস্থ কর্মকর্তা হিসাবে পরিচয় দিয়ে প্রতারণা করতেন। তার টার্গেটেই ছিলো ধনী পরিবারের অবিবাহিত ও চাকুরীজীবী কন্যা। ঢাকার কিছু অসাধু ঘটকের কাছ থেকে অবিবাহিত মেয়েদের তথ্য টাকার বিনিময়ে সংগ্রহ করতেন গোলাম মোস্তফা। এরপর তাদের সঙ্গে ফোনে যোগাযোগ শুরু করেন তিনি। এক পর্যায়ে ভুক্তভোগী পরিবারের সদস্য বিশেষ করে পাত্রীর মায়ের সঙ্গে সখ্যতা গড়ে তোলেন এবং বিশ্বস্ততা অর্জন করেন।

আরো জানা গেছে, এর একপর্যায়ে নানা অজুহাত দেখিয়ে বিবাহপ্রার্থীদের কাছ থেকে টাকা ধার নিতেন তিনি। যেমন- পিএইচডি করতে বিদেশ যাওয়া, দুদককে ঘুষ দেয়া, বদলি বাতিলকরণ সহ নানা অজুহাতে এই টাকা নিতেন। পরবর্তীতে ধারকৃত টাকা ফেরত না দিয়ে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন করে দিতেন তিনি।

এ ঘটনায় গত ১১ ফেব্রুয়ারি প্রতারণার শিকার হয়ে বেসরকারি ব্যাংকে কর্মরত একজন নারী বাদী হয়ে ঢাকা মহানগরীর ক্যান্টনমেন্ট থানায় প্রতারক গোলাম মোস্তফার নামে একটি মামলা দায়ের করেন। এই মামলার তদন্ত সিআইডিকে দেয়া হয়। মালাটি সিআইডির তদন্তাধীন রয়েছে।

সিআইডির অর্গানাইজড ক্রাইম বিভাগের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রাজীব ফারহান জানান, ডিগ্রি পাশ এই প্রতারকের বাড়ি কুড়িগ্রামে। সেখানে তার স্ত্রী ও দুই সন্তান রয়েছে। অথচ নিজেকে অবিবাহিত পরিচয় দিয়ে এখন পর্যস্ত চারজনকে বিয়ে করার তথ্য দিয়েছে। আরো তথ্য আদায়ের জন্য ১০ দিনের রিমান্ড চেয়ে মঙ্গলবার তাকে আদালতে পাঠানো হবে।

বাংলা/এনএস

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0893 seconds.