• বিদেশ ডেস্ক
  • ০২ জুন ২০২০ ০৯:০১:১২
  • ০২ জুন ২০২০ ১১:১৫:০৪
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

করোনায় প্রাণহানি পৌন চার লাখ ছাড়ালো

ফাইল ছবি

বিশ্বে নভেল করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃতের সংখ্যা তুলনামূলকভাবে কমছে। তবে আক্রান্তের সংখ্যা এখনো উর্ধ্বমুখী। আগের ২৪ ঘণ্টায় তিন হাজারের বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে। একই সময়ে আরো লক্ষাধিক মানুষের শরীরে প্রাণঘাতী এ ভাইরাসটি শনাক্ত হয়েছে।

পরিসংখ্যানভিত্তিক ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটারের তথ্য মতে, এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত (২ জুন, মঙ্গলবার সকাল পৌন ৯টা) সারাবিশ্বে মোট করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৬৩ লাখ ৬৬ হাজার ১৯৩ জন। এদের মধ্যে ৩ লাখ ৭৭ হাজার ৪৩৭ জন ইতোমধ্যে মৃত্যুবরণ করেছেন।

এতে আক্রান্তদের ২৯ লাখ ৩ হাজার ৬০৫ জন সুস্থ হয়ে উঠেছেন। এখনো চিকিৎসাধীন ৩০ লাখ ৮৫ হাজার ১৫১ জন, যাদের ৫৩ হাজার ৪০৩ জনের অবস্থা গুরুতর।

এদিকে আক্রান্ত ও মৃতের হিসেবে শীর্ষে থাকা যুক্তরাষ্ট্রে মৃত্যুর সংখ্যা কমেছে। দেশটিতে একদিনে আরো ৬ শতাধিক প্রাণহানি আর ২০ হাজারের বেশি নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। সেখানে এখন মোট আক্রান্ত ১৮ লাখ ৫৯ হাজার ৩২৩ জন। আর ১ লাখ ৬ হাজার ৯২৫ জন ইতোমধ্যে মারা গেছেন।

দেশটিতে ৬ লাখ ১৫ হাজার ৪১৬ জন করোনারোগী সুস্থ হয়েছেন। বর্তমানে যে ১১ লাখ ৩৬ হাজার ৯৮২ জন চিকিৎসাধীন রয়েছেন, তাদের মধ্যে ১৬ হাজার ৯৪৯ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

আক্রান্তের হিসেবে দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা ব্রাজিল মৃত্যুর দিক থেকে বিশ্বে এখন চতুর্থ অবস্থানে রয়েছে। দেশটিতে গত ২৪ ঘণ্টায় আরো প্রায় ৫শ’ মানুষের প্রাণ কেড়েছে করোনা। আর নতুন করে প্রায় সাড়ে ১৬ হাজার মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন।

লাতিন আমেরিকার বৃহত্তম এ দেশটিতে মোট ৫ লাখ ২৯ হাজার ৪০৫ জন এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। এদের মধ্যে মৃত্যুবরণ করেছেন ৩০ হাজার ৪৬ জন, সুস্থ হয়েছেন ২ লাখ ১১ হাজার ৮০ জন। এখনো ২ লাখ ৮৮ হাজার ২৭৯ জন চিকিৎসাধীন আছেন, যাদের মধ্যে গুরুতর অবস্থায় আছেন ৮ হাজার ৩১৮ জন।

৪ লাখ ১৪ হাজার ৮৭৮ জন করোনারোগী নিয়ে আক্রান্তের হিসেবে পরের অবস্থানেই রয়েছে রাশিয়া। দেশটিতে এখন পর্যন্ত ৪ হাজার ৮৫৫ জন এতে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ও সুস্থ হয়েছেন ১ লাখ ৭৫ হাজার ৮৭৭ জন। বর্তমানে চিকিৎসাধীন ২ লাখ ৩৪ হাজার ১৪৬ জন। গুরুতর অবস্থায় আছেন ২ হাজার ৩০০ জন।

আক্রান্তের হিসেবে চতুর্থ অবস্থানে আছে স্পেন। দেশটিতে মোট  ২ লাখ ৮৬ হাজার ৭১৮ জন কোভিড-১৯ আক্রান্তের মধ্যে মৃত্যুবরণ করেছেন ২৭ হাজার ১২৭ জন। এখন পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ১ লাখ ৯৬ হাজার ৯৫৮ জন ও চিকিৎসাধীন আছেন ৬২ হাজার ৬৩৩ জন। বর্তমানে দেশটিতে ৬১৭ জন করোনারোগীর অবস্থা গুরুতর। সেখানে আরো ১৫ দিন পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে জরুরি অবস্থার মেয়াদ।

আক্রান্তের হিসেবে পঞ্চম অবস্থানে থাকলেও যুক্তরাজ্য মৃতের হিসেবে আছে দ্বিতীয় অবস্থানে। দেশটিতে মোট করোনায় আক্রান্ত ২ লাখ ৭৬ হাজার ৩৩২ জন। এদের মধ্যে মৃত্যুবরণ করেছেন ৩৯ হাজার ৪৫ জন ও গুরুতর অবস্থায় চিকিৎসাধীন আছেন ১ হাজার ৫৫৯ জন।

করোনার সংক্রমণ কমতে থাকায় লকডাউন শিথিল করেছে ইতালি। আক্রান্তের হিসেবে দেশটি এখনো ষষ্ঠ অবস্থানে ও মৃতের হিসেবে আছে তৃতীয় অবস্থানে। দেশটিতে মোট ২ লাখ ৩৩ হাজার ১৯৭ জন আক্রান্ত রোগীর মধ্যে ৩৩ হাজার ৪৭৫ জন ইতোমধ্যে মারা গেছেন। এখন পর্যস্ত সুস্থ হয়েছেন ১ লাখ ৫৮ হাজার ৩৫৫ জন ও চিকিৎসাধীন আছেন ৪১ হাজার ৩৬৭ জন। সেখানে ৪২৪ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

আক্রান্তের হিসেবে শীর্ষ সাতে উঠে এসেছে ভারত। দেশটিতে মোট ১ লাখ ৯৮ হাজার ৩৭০ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে। এখন পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে ৫ হাজার ৬০৮ জনের ও সুস্থ হয়েছেন ৯৫ হাজার ৭৫৪ জন। বর্তমানে যে ৯৭ হাজার ৮ জন চিকিৎসাধীন আছেন, তাদের মধ্যে গুরুতর অবস্থা ৮ হাজার ৯৪৪ জনের।

আক্রান্তের হিসেবে পরের স্থানেই রয়েছেন ফ্রান্স। তবে মৃতের হিসেবে পঞ্চম অবস্থানে আছে দেশটি। সেখানে মোট  ১ লাখ ৮৯ হাজার ২২০ জন আক্রান্ত হয়েছেন, যাদের মধ্যে ২৮ হাজার ৮৩৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। সুস্থ হয়েছেন ৬৮ হাজার ৪৪০ জন। চিকিৎসাধীন রয়েছেন ৯১ হাজার ৯৪৭ জন, যাদের ১ হাজার ৩০২ জনের অবস্থা গুরুতর।

এছাড়া কোভিড-১৯ আক্রান্ত হয়ে মেক্সিকোতে ১০ হাজার ১৬৭ জন, বেলজিয়ামে ৯ হাজার ৪৮৬ জন, জার্মানিতে ৮ হাজার ৬১৮ জন, ইরানে ৭ হাজার ৮৭৮ জন, কানাডায় ৭ হাজার ৩২৬ জন, নেদারল্যান্ডসে ৫ হাজার ৯৬২ জন, পেরুতে ৪ হাজার ৬৩৪ জন, চীনে ৪ হাজার ৬৩৪ জন, তুরস্কে ৪ হাজার ৫৬৩ জন, সুইডেনে ৪ হাজার ৪০৩ জন, ইকুয়েডরে ৩ হাজার ৩৫৮ জন, সুইজাল্যান্ডে ১ হাজার ৯২০ জন, আয়ারল্যান্ডে ১ হাজার ৬৫০ জন, ইন্দোনেশিয়ায় ১ হাজার ৬৪১ জন, পাকিস্তানে ১ হাজার ৫৪৩ জন, পর্তুগালে ১ হাজার ৪২৪ জন, রোমানিয়ায় ১ হাজার ২৭৬ জন, চিলিতে ১ হাজার ১১৩ জন, পোল্যান্ডে ১ হাজার ৭৪ জন, মিসরে ১ হাজার ৫ জনের মারা গেছেন।

বাংলা/এসএ/

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0800 seconds.