• বিদেশ ডেস্ক
  • ২১ জুন ২০২০ ১২:২২:৪৩
  • ২১ জুন ২০২০ ১৪:৪৩:২০
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

নাইজেরিয়ায় করোনা প্রতিরোধে ‘কার্যকর’ ভ্যাকসিন আবিষ্কারের দাবি

ছবি : প্রতীকী

নভেল করোনাভাইরাসে তাণ্ডবে যখন সারা বিশ্ব বিপর্যস্ত তখন প্রাণঘাতী এ ভাইরাস প্রতিরোধে কার্যকর ভ্যাকসিন আবিষ্কারের দাবি করেছেন নাইজেরীয় বিজ্ঞানীরা। ভ্যাকসিনটি বিস্তৃত পরিসরে বাজারে আনতে এবং বিশ্বময় ছড়িয়ে দিতে আরো বছর দেড়েক সময় লাগতে পারে বলে জানিয়েছেন তারা।

এক প্রতিবেদনে এমন সংবাদ জানিয়েছে তুর্কি বার্তা সংস্থা আনাদোলু এজেন্সি। তাদের খবরে বলা হয়েছে, ট্রিনিটি ইমিউনোডিফিসিয়েন্ট ল্যাবরেটরি ও হেলিক্স বায়োজেন কনসাল্টের ২০ হাজার মার্কিন ডলার অর্থায়নে এ ভ্যাকসিন গবেষণা প্রকল্পটির কাজ শুরু হয়েছিল।

নাইজেরিয়ার কোভিড-১৯ বিষয়ক গবেষক দলের প্রধান ড. ওলাদিপো কোলাওল বলেন, ‘এ ধরনের বৈশ্বিক মহামারীর সমাধান দিতে পারাটা আমাদের জন্য আবেগের।’ তার দলের আবিষ্কৃত ভ্যাকসিনটি এখন বাস্তবতা বলেও দাবি করেন এই গবেষক।

সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে দেশটির এডা প্রদেশের অ্যাডিলেক বিশ্ববিদ্যালয়ে গত ১৯ জুন, শুক্রবার ড. ওলাদিপো বলেন, ‘ভ্যাকসিনটি খাঁটি। আমরা বেশ কয়েকবার ভ্যাকসিনটি যাচাই করেছি।’

ভ্যাকসিনটি আফ্রিকানদের কথা মাথায় রেখে তৈরি করা হলেও অন্যান্য জাতিগোষ্ঠীর জন্যও এটি কাজ করবে উল্লেখ করে তিনি আরো বলেন, ‘এটি ভুয়া হতে পারে না। ভ্যাকসিনটি দৃঢ়প্রত্যয়ের ফল। অনেক বৈজ্ঞানিক প্রচেষ্টায় ভ্যাকসিনটি তৈরি হয়েছে।’

ড. ওলাদিপো কোলাওলে বলেন, ‘সম্ভাব্য সর্বোত্তম ভ্যাকসিন ক্যান্ডিডেটস বাছাইয়ের জন্য আফ্রিকাজুড়ে করোনা ভাইরাসের নমুনা থেকে জিনোম সংগ্রহ করেছে তার দল।’ তবে এখনো ভ্যাকসিনটির কোনো নাম নির্ধারণ করা হয়নি বলেও জানান তিনি।

তিনি আরো বলেন, ‘ভ্যাকসিনটি ব্যাপকভাবে ব্যবহারের জন্য অন্তত ১৮ মাস সময় লাগবে। এ সময়ের মধ্যে প্রতিষেধকটি নিয়ে বৃহৎ পরিসরে গবেষণা, বিশ্লেষণ ও স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষের অনুমোদন নিতে হবে।’

গত ডিসেম্বরের শেষদিকে চীনের হুবেই প্রদেশের রাজধানী উহানে নভেল করোনাভাইরাসে (কোভিড-১৯) আক্রান্ত রোগীর তথ্য জানা যায়। এর কিছুদিনের মধ্যেই সে দেশের সীমানা ছাড়িয়ে বিশ্বের নানান দেশে এতে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হতে থাকে। উদ্ভূত পরিস্থিতিতে ১১ মার্চ করোনাভাইরাস সংকটকে বৈশ্বিক মহামারী হিসেবে ঘোষণা করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)।

এখন পর্যন্ত এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে সারা পৃথিবীতে প্রায় ৪ লাখ ৬৭ হাজার মানুষের মৃত্যু হয়েছে। মোট আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় ৯০ লাখ। এর মধ্যে অবশ্য ৪৭ লাখের বেশি মানুষ সুস্থ হয়ে উঠেছেন।

ওয়ার্ল্ডোমিটারের তথ্য অনুযায়ী, পশ্চিম আফ্রিকার বৃহত্তম অর্থনীতির দেশ নাইজেরিয়ায় এখন পর্যন্ত ১৯ হাজার ৮০৮ জনের শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। এদের মধ্যে ৫০৬ জন ইতোমধ্যে মারা গেছেন।

বাংলা/এসএ/

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0960 seconds.