• বিদেশ ডেস্ক
  • ২৮ জুন ২০২০ ১৭:১৪:৪৭
  • ২৮ জুন ২০২০ ১৭:১৪:৪৭
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

লাদাখ সংঘর্ষের আগে চীনা বাহিনীতে মার্শাল আর্ট ফাইটার-পর্বতারোহী

ছবি : সংগৃহীত

ভারতীয় সেনার সঙ্গে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের ঠিক আগেই চলতি মাসে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখায় নিজেদের বাহিনীতে মার্শাল আর্ট ফাইটার এবং পর্বতারোহীদের যুক্ত করেছিল পিএলএ। চীনের সরকারি সংবাদমাধ্যমেই এই খবর প্রকাশিত হয়েছে।

দু'দেশের সীমান্তে উত্তেজনা একেবারেই নতুন কিছু নয়। কিন্তু চলতি মাসে দুই বাহিনীর মধ্যে হওয়া সংঘর্ষ গত ৫০ বছরে সবথেকে রক্তক্ষয়ী ছিল বলে দাবি করা হচ্ছে।

চীনের মিলিটারি বিভাগের সরকারি সংবাদপত্র চায়না ন্যাশনাল ডিফেন্স নিউজ-এর খবর অনুযায়ী, মাউন্ট এভারেস্ট অলিম্পিক টর্চ রিলে দলের প্রাক্তন কয়েকজন সদস্য এবং একটি মিক্সড মার্শাল আর্ট ক্লাবের ফাইটাররা গত ১৫ জুন লাসা-তে শারীরিক সক্ষমতার পরীক্ষার জন্য হাজির হয়েছিলেন।

চীনের সরকারি সংবাদমাধ্যমের সিসিটিভি ফুটেজেই দেখা গিয়েছে, তিব্বতের রাজধানীতে হাজারে হাজারে নতুন বাহিনী জড়ো হচ্ছে।

পিএলএ-এর তিব্বতের কম্যান্ডার ওয়াং হাইজাং দাবি করেছেন, এনবো ফাইট ক্লাবের সদস্যদের অন্তর্ভুক্তি সাংগঠনিক ভাবে তাদের বাহিনীর শক্তি অনেকটাই বৃদ্ধি করবে। তাদের এক জায়গা থেকে অন্যত্র দ্রুত সরাতেও সুবিধে হবে। এর পাশাপাশি শত্রুপক্ষকে দ্রুত জবাব দেওয়া এবং বাহিনীকে সাহায্য করার ক্ষেত্রেও এই নতুন নিয়োগ যথেষ্ট সাহায্য করবে৷

ঘটনাচক্রে সেদিন গভীর রাতেই লাসা থেকে প্রায় ১৩০০ কিলোমিটার দূরে লাদাখের গালওয়ানে ভয়াবহ সংঘর্ষে জড়িয়ে পরে ভারত এবং চীনের বাহিনী৷ সেই ঘটনায় ভারতের ২০ জন সেনার মৃত্যু হয়৷ যদিও চীনের কতজন সেনার মৃত্যু হয়েছে, সে বিষয়ে মুখ খোলেনি বেজিং৷

ভারতও বৃহস্পতিবার জানিয়েছে, চীনের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে তারাও হিমালয় সংলগ্ন পার্বত্য এলাকায় সীমান্তে নিজেদের বাহিনীর শক্তি বৃদ্ধি করেছে৷ 

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

Page rendered in: 0.1056 seconds.