• বিদেশ ডেস্ক
  • ০৮ জুলাই ২০২০ ১৮:০৯:৩৫
  • ০৮ জুলাই ২০২০ ১৮:০৯:৩৫
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

করোনায় ক্ষতিগ্রস্থ হতে পারে মস্তিষ্ক

ছবি : সংগৃহীত

বিজ্ঞানীরা বুধবার করোনাভাইরাস-সম্পর্কিত মস্তিষ্ক ক্ষতিগ্রস্থ হওয়া নিয়ে সতর্ক করেছেন। এ সতর্কীকরণ বার্তায় বলা হয়েছে, কোভিড -১৯ মস্তিষ্কের প্রদাহ, সাইকোসিস এবং প্রলাপবকা সহ গুরুতর স্নায়বিক জটিলতা সৃষ্টি করতে পারে।

ইউনিভার্সিটি কলেজ লন্ডনের (ইউসিএল) গবেষকদের এক গবেষণায় ৪৩ জন কোভিড রোগী সম্পর্কে বলা হয়েছে যারা অস্থায়ীভাবে মস্তিষ্কের কর্মহীনতা, স্ট্রোক, স্নায়ু ক্ষতি বা অন্যান্য গুরুতর মস্তিস্কের প্রভাবের শিকার হয়েছে।

ইউসিএল এর ইনস্টিটিউট থেকে মাইকেল জান্দি বলেছিলেন, ‘যে কোন মহামারীতে আমরা দেখতে পাব যে মস্তিষ্কের বিভিন্ন ধরণের ক্ষয়ক্ষতি সংক্রান্ত প্রাদূর্ভাব যেমন আমরা সম্ভবত ১৯১৮ সালে ঘটে যাওয়া মহামারি পরবর্তীতে ১৯৩০ এর দশকে এনসেফালাইটিস লেথারজিকা প্রাদুর্ভাব দেখা দিয়েছিলো।’

কোভিড -১৯ মূলত ফুসফুসকে ক্ষতিগ্রস্থ করলেও স্নায়ুবিজ্ঞানী এবং মস্তিষ্কের বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা বলেছেন যে এটি মস্তিষ্কের উপরেও খারাপ প্রভাব ফেলতে পারে।

অ্যাড্রিয়ান ওয়েন, কানাডার নিউরো বিজ্ঞানী এক সাক্ষাৎকারে রয়টার্সকে জানিয়েছেন, ‘আমার চিন্তার বিষয় হলো আমাদের এখন কোভিড -১৯ সংক্রমণের লক্ষ লক্ষ লোক রয়েছে। এবং যদি এক বছরের মধ্যে আমাদের ১০ মিলিয়ন মানুষ এখান থেকে সুস্থ হয়ে ওঠে এবং সেই লোকগুলোর বোঝার ঘাটতি দেখা দেয় ... তবে এটি তাদের কাজ করার দক্ষতা এবং প্রতিদিনের জীবনযাত্রার কাজকর্ম চালিয়ে যাওয়ার সক্ষমতাকে প্রভাবিত করবে।’

ব্রেন জার্নাল পত্রিকায় প্রকাশিত ইউসিএল সমীক্ষায় দেখা গেছে, মস্তিস্কে প্রদাহজনিত নয়জন রোগীর ‘একিউট ডিসিমিনেটেড এনসেফেলোমেলাইটিস’ (এডিইএম) নামক একটি বিরল পরিস্থিতি ধরা পড়েছে; যা সাধারণত শিশুদের মধ্যে দেখা যায় এবং ভাইরাল সংক্রমণের কারণেই এটি হয়ে থাকে।

‘এই রোগটি প্রায় কয়েক মাস ধরে চলছে। আমরা এখনও জানি না যে কোভিড-১৯ কতটা দীর্ঘমেয়াদী ক্ষতির কারণ হতে পারে।’ বলেছেন গবেষণার সহ-নেতৃত্বকারী রস পেটারসন। তিনি আরো বলেন, ‘ডাক্তারদের সম্ভাব্য স্নায়বিক প্রভাব সম্পর্কে সচেতন হওয়া দরকার, কারণ প্রাথমিক দিকেই রোগ নির্ণয়ের ফলে রোগীর অবস্থার উন্নতি হতে পারে।’

বিজ্ঞাপন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

করোনাভাইরাস মস্তিষ্ক

আপনার মন্তব্য

Page rendered in: 0.0890 seconds.