• নিজস্ব প্রতিবেদক
  • ০৯ জুলাই ২০২০ ১৪:০৮:৫৪
  • ০৯ জুলাই ২০২০ ১৪:০৮:৫৪
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

মিরসরাইয়ে লোহার কারখানার চালানে মিললো গ্রেনেড

ছবি : সংগৃহীত


চট্টগ্রাম ব্যুরো


চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ে বাংলাদেশ স্টিল রি-রোলিং মিলস (বিএসআরএম) লিমিটেডের কারখানার স্ক্যাব লোহার চালান থেকে একটি তাজা গ্রেনেড উদ্ধার করা হয়েছে। চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের (সিএমপি) কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিট গতকাল ৮ জুলাই, বুধবার সন্ধ্যায় তাজা গ্রেনেডটি উদ্ধার করে।

এরপর পাশের একটি খালি জায়গায় নিয়ে গিয়ে বিস্ফোরণ ঘটিয়ে নিষ্ক্রিয় করেন কাউন্টার টেররিজম ইউনিটের বোম্ব ডিজপোজাল ইউনিটের সদস্যরা। এ ঘটনায় জোরারগঞ্জ থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি হয়েছে।

মিরসরাইয়ের জোরারগঞ্জের মধ্যম সোনাপাহাড় এলাকার কারখানায় এ গ্রেনেডটির সন্ধান পাওয়া যায়।

কাউন্টার টেররিজম ইউনিটের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (এডিসি) পলাশ কান্তি নাথ বলেন, ‘জেলা পুলিশের মাধ্যমে জোরারগঞ্জ থানা থেকে খবর পেয়ে বোম ডিসপোজাল ইউনিটিকে ঘটনাস্থলে পাঠানো হয়। তারা গ্রেনেডটি শনাক্ত করে পাশের একটি খালি জায়গায় নিয়ে গিয়ে বিস্ফোরণ ঘটিয়ে গ্রেনেডটি নিষ্ক্রিয় করেন।’

এছাড়া কারখানার ভেতরে আর কোনো গ্রেনেড আছে কিনা তাও দেখা হয় উল্লেখ করে তিনি জানান, তবে আর কোনো গ্রেনেড সেখানে পাওয়া যায়নি।

পুরো অভিযানটিতে নেতৃত্ব দেন বোম্ব ডিসপোজাল ইউনিটের পরিদর্শক রাজেশ বড়ুয়া।

জোরারগঞ্জ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মুহাম্মদ হেলাল উদ্দিন বলেন, ‘বুধবার বিকেলের দিকে কারখানা থেকে খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যাই। দেখা যায়- কারখানায় আমদানি করা লোহার রড তৈরির কিছু কাঁচামালের মধ্যে একটি গ্রেনেড পড়ে আছে।’

সেটি উদ্ধার করতে সিএমপির কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটকে খবর দিলে তারা ঘটনাস্থলে আসে এবং সেটি উদ্ধার করে নিষ্ক্রিয় করেন বলেও জানান তিনি।

মোহাম্মদ হেলাল উদ্দিন বলেন, ‘গ্রেনেড কোথা থেকে কিভাবে কারখানার ভেতরে আসলো তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। বিষয়টি জেলা পুলিশের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের জানানো হয়েছে। কারখানার নিরাপত্তার ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে।’

বাংলা/এসএ/

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

Page rendered in: 0.1086 seconds.