• বিদেশ ডেস্ক
  • ২৫ জুলাই ২০২০ ২১:৪৮:৪১
  • ২৫ জুলাই ২০২০ ২১:৪৮:৪১
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

ফ্রিজ থেকেও কি করোনার সংক্রমণ ঘটে?

ছবি: সংগৃহীত

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) মহামারীতে বিপর্যস্ত মানবজীবন। হাঁচি-কাশি ও বাতাসসহ নানাভাবে এই ভাইরাসে সংক্রমিত হওয়ার তথ্য কমবেশি সবারই জানা। কিন্তু বাসায় ব্যবহৃত ফ্রিজ থেকেও কি করোনা সংক্রমণের ঝুঁকি রয়েছে? কি ভাবছেন বিশেষজ্ঞরা?

সম্প্রতি কিছু ঘটনায় দেখা গেছে, বাড়ির সদস্যরা বাহিরে না গিয়েও করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। এ ঘটনায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম খ্যাত এক বিশেষজ্ঞ ফ্রিজকেই দায়ী করেন। তবে বিশেষজ্ঞরা এ বিষয়ে একমত নন। এমন খবর প্রকাশ করেছেন নিউজ এইট্টিন।

এ বিষয়ে বিশেষজ্ঞরা জানান, ফ্রিজে ভাইরাস থাকে, কিন্তু সেই তাপমাত্রা কমপক্ষে মাইনাস ১৯০ ডিগ্রি হতে হবে। ওই মাত্রার ঠান্ডা ছাড়া ভাইরাস সংরক্ষণ সম্ভব নয়। সাধারণত ল্যাবে-১৯০ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রায় ভাইরাসকে সংরক্ষণ করা হয়। এতে ভাইরাস জমে থাকে। আর ৩৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রায় ভাইরাস সক্রিয় হয়।

বিশেষজ্ঞরা আরো জানান, পক্ষান্তরে বাসার ফ্রিজের তাপমাত্রা ০ থেকে -৩ ডিগ্রির মধ্যে থাকে। ফ্রিজের সাধারণ অংশের তাপমাত্রা থাকে ৪-১০ ডিগ্রি। তাই ফ্রিজের তাপমাত্রায় ভাইরাস বাঁচার সম্ভাবনা কম বলেই মত দেন বিশেষজ্ঞরা। ফ্রিজ থেকে করোনায় সংক্রমিত হওয়ার প্রমাণ এখনো নেই।

তবে এ বিষয়ে সতর্ক করে বিশেষজ্ঞরা বলেন, যেকোন জিনিস বাড়িতে এনেই ফ্রিজে রাখা উচিত হবে না। সবার আগে ভাল করে শাক-সবজি ধুয়ে রোদে পানি শুকাতে হবে। এর ঘণ্টা খানেক পর সেগুলো ফ্রিজে ঢোকাতে হবে। এরপর সাবান দিয়ে ভালো করে হাত ধুয়ে নিতে হবে।

বিশেষজ্ঞরা আরো জানান, সুস্থ থাকতে সপ্তাহে নিয়মিত ফ্রিজের ভিতরের অংশ পরিষ্কার করতে হবে। এছাড়াও সবজি রাখার জায়গাও নিয়মিত পরিষ্কার করতে হবে।

তবে ২০১০-সালে যুক্তরাষ্ট্রের সোসাইটি ফর মাইক্রোবায়োলজির গবেষণায় বিজ্ঞানীরা দাবি করেন, ভাইরাসের উপর তাপমাত্রা, আপেক্ষিক আর্দ্রতা ও আলোর প্রভাব রয়েছে। ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রায় ভাইরাস ৭২ ঘণ্টা পর্যন্ত বাঁচতে পারে। কম তপমাত্রা ও আর্দ্রতায় সেটা ২৮ দিন।

বাংলা/এনএস

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0710 seconds.