• বিদেশ ডেস্ক
  • ২৮ জুলাই ২০২০ ২০:২৯:৫৭
  • ২৮ জুলাই ২০২০ ২০:২৯:৫৭
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

প্রথম কোন মুসলিমকে রাষ্ট্রদূত বানালো ইসরায়েল

ইসমাইল খালেদি। ছবি: সংগৃহীত

প্রথমবারের মতো কোন মুসলিমকে রাষ্ট্রদূত হিসেবে নিয়োগ দিয়েছে ইসরায়েল সরকার। মেধাবী এই মুসলিম রাষ্ট্রদূতের নাম ইসমাইল খালেদি। তিনি মেষপালক গোত্র থেকে উঠে এসেছেন। মুলত নিজেদের বর্ণবাদী অপবাদ ঘোচানোর জন্য আরবের বেদুইন সম্প্রদায়ের এই মুসলিমকে নিয়োগ দিয়েছে ইহুদিবাদী এই রাষ্ট্র।

সম্প্রতি ৩ নারীসহ ১১ জন কূটনীতিককে নতুন রাষ্ট্রদূত হিসেবে নিয়োগ দিয়েছে ইসরায়েল। এর মধ্যে একজন হচ্ছেন ইসমাইল খালেদি। এমন খবর প্রকাশ করেছে জেরুজালেম পোস্ট।

ইসমাইলকে এ পর্যন্ত আসতে অনেক কষ্ট করতে হয়েছে। আরব বেদুইনদের বৈষম্যের বিষয়টি ফলাও করে বিশ্ববাসীকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে জানিয়েছেন তিনি।

ইসরায়েলের ক্ষমতাসীন লিকুদ পার্টির আস্থাভাজন হিসেবে পরিচিত ইসমাইল। ২০০৪ সাল দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে নিয়োগ পান তিনি। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সান ফ্রান্সিসকো কনসোলেট এবং যুক্তরাজ্যের ইসরায়েলি দূতাবাসেও গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্বে ছিলেন ইসমাইল। তাকে আফ্রিকার দেশ এরিত্রিয়ার রাষ্ট্রদূত হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয়েছে।

ইসমাইল আরব বেদুইনদের অধিকার আন্দোলনে বরাবরই সরব ছিলেন। ২০১৭ সালে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে দেয়া পোস্টে তিনি বলেন, আরব বেদুইনদের তাদের অধিকার আদায়ে আন্দোলন চালিয়ে যেতে হবে। প্রয়োজনে ইসরায়েলের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতে যাওয়া উচিৎ। একজন কূটনীতিক হয়েও তার দেশের দখলদারিত্বের বিরুদ্ধে কথা বলতে ভয় পাননি তিনি।

ইসরায়েলের হাইফা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বিএসসি এবং তেলআবিব বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিষয়ে মাস্টার্স ডিগ্রি অর্জন করেন ইসমাইল।

বাংলা/এনএস

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

Page rendered in: 0.0944 seconds.