• ক্রীড়া ডেস্ক
  • ৩১ জুলাই ২০২০ ১১:০৬:২৩
  • ৩১ জুলাই ২০২০ ১১:০৭:০৯
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

সুরক্ষায় ‘বায়ো-বাবল’ পদ্ধতিতে হবে আইপিএল

ছবি: সংগৃহীত

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) মহামারীর কারণে প্রায় চার মাস পর ইংল্যান্ড-ওয়েস্ট ইন্ডিজ টেস্ট সিরিজ অনুষ্ঠিত হয়। তবে সংক্রমণ রোধে ক্রিকেটারদের জন্য ব্যবস্থা করা হয়েছিল ‘বায়ো-বাবল বা জৈব-সুরক্ষা’ বলয়। আসন্ন আইপিএলেও ক্রিকেটারদের জন্য এই ব্যবস্থা থাকছে।

সম্প্রতি বায়ো-বাবল’ সুরক্ষার প্রোটোকল ভাঙায় ইংল্যান্ডের পেসার জোফ্রা আর্চারকে জরিমানা গুনতে হয়। করোনাকালে ক্রিকেটারদের সুরক্ষার বিষয়ে চিন্তিত আইসিসি ও ক্রিকেট সংস্থাগুলো। তাই ক্রিকেটারদের সংক্রমণ থেকে বাঁচাতে তৈরি হয়েছে ‘বায়ো-বাবল’। এমন খবর প্রকাশ করেছে জিনিউজ।

ইংল্যান্ড এবং ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজে এই পদ্ধতি মেনে চলা হয়। এ সময় দুই দলের ক্রিকেটারদের হোটেলের বাইরে এই পরিবেশ ছেড়ে কোথাও যেতে দেয়া হয়নি। দুটি দলের সিরিজ আয়োজন করতে গিয়ে এই বলয় তৈরিতে ইসিবি’র কোনো সমস্যা হয়নি। সাউদাম্পটনের পাশেই এজিয়াস বাউল হোটেল। আবার অন্যদিকে ম্যাঞ্চেস্টারে ওল্ড ট্র্যাফোর্ড ক্রিকেট স্টেডিয়ামের পাশেই হিল্টন হোটেলস।

তবে দুবাইতে আইপিএলের জন্য উপস্থিত হবে মোট ১২০০ জন। এতগুলো দল ও ক্রিকেটারের জন্য বায়ো-বাবল’র ব্যবস্থা শতভাগ নিশ্চিত করা যাবে কিনা শঙ্কা তৈরি হয়েছে।

‘বায়ো-বাবল’ কী?

করোনাকালে বাস্কেটবল খেলা আয়োজন করতে গিয়েই প্লেয়ারদের সুরক্ষার জন্য প্রথম ‘বায়ো-বাবল’ বলয়ের ব্যবস্থা করা হয়েছিল। তবে এর সঙ্গে বাবল অর্থাৎ বুদবুদ বা বেলুন জাতীয় কিছুর কোনো সম্পর্ক নেই। এটি আসলে একটি সুরক্ষিত পরিবেশ। স্যানিটাইজ করা একটা পরিবেশ, সেই পরিবেশ থেকে ক্রিকেটাররা বেরোতে পারবেন না। আবার বাইরের কেউ সেই পরিবেশে ঢুকতে পারবেন না। মূলত ক্রিকেটারদের আইসোলেটেড রাখতেই এমন ব্যবস্থা করা হয়।

বায়ো-বাল’এ থাকাকালীন একজন ক্রিকেটার পরিবার, বন্ধু কারো সঙ্গে দেখা কতে পারবেন না। আর এই পরিবেশে প্রবেশের আগে বাধ্যতামূলকভাবে কোয়ারেন্টাইন থাকতে হবে। বায়ো-বাবল ব্যবস্থায় দর্শকশূ্ন্য স্টেডিয়ামে ম্যাচ আয়োজন করতে হবে।

বাংলা/এনএস

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

Page rendered in: 0.0795 seconds.