• বিদেশ ডেস্ক
  • ০১ আগস্ট ২০২০ ১৫:৪৯:০৭
  • ০১ আগস্ট ২০২০ ১৫:৫১:৩৮
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

গরুর মাংস কতোটুকু খাওয়া নিরাপদ

ছবি: বিবিসি থেকে নেয়া

ঈদুল আজহা বা কোরবানির ঈদে গরুর মাংস খাওয়ার পরিমাণ বেড়ে যায়। তবে অনেকেই ধারণা করেন গরুর মাংস খেলেই স্বাস্থ্যের ক্ষতি হবে। প্রচুর কোলেস্টেরল থাকায় অনেকেই গরুর মাংস খেতে চান না বা খানই না।

গরুর মাংসের যেমন ক্ষতিকর দিক আছে, তেমনি অনেক উপকারিতাও আছে। আর গরুর মাংসে যতো পুষ্টিগুণ আছে, তা অন্য কোন খাবার থেকে পাওয়া কঠিন বলেও জানান পুষ্টিবিদরা।

তবে বিশেষজ্ঞরা জানান, এই গরুর মাংস আপনার জন্য ক্ষতিকর না উপকারী, সেটা নির্ভর করবে আপনি কতোটা নিয়ম মেনে এবং কি পরিমাণে এই মাংস খাচ্ছেন।

গরুর মাংসের পুষ্টিগুণ :

গরুর মাংসে মানবদেহের জন্য প্রয়োজনীয় প্রোটিন, ভিটামিনস, মিনারেলস বা খনিজ উপাদান রয়েছে। এছাড়াও জিঙ্ক, সেলেনিয়াম, ফসফরাস ও আয়রন আছে। আবার ভিটামিন বি২, বি৩, বি৬, এবং বি১ রয়েছে এই মাংসে।

কতোটুকু গরুর মাংস খাওয়া নিরাপদ :

কোরবানি ঈদের পর পর বেশ কয়েক দিন গরুর মাংস অনেক বেশি খাওয়া হয়। তাই এ সময় প্রোটিন-সমৃদ্ধ অন্য খাবার এড়িয়ে চলুন। কখনোই প্রতিদিন একটানা মাংস খাওয়া যাবে না।

পুষ্টিবিদ তাসনিম হাসিন জানান, গরুর মাংস খাওয়ার নিরাপদ মাত্রা হল সপ্তাহে দুই দিন, মোট তিন থেকে পাঁচ বেলা খাওয়া। এই দুই দিনে আপনি মোট ১৫৪ গ্রাম গরুর মাংস খেতে পারবেন। আর সপ্তাহের ওই দুই দিন প্রতি বেলায় আপনার পাতে মাংসের পরিমাণ হবে ১৬ থেকে ২৬ গ্রাম।

তিনি আরো বলেন, আরো সহজ করে বললে- প্রতি বেলায় ঘরে রান্না করা মাংস ২ বা ৩ টুকরার বেশি খাবেন না। তবে আপনি যদি ডায়াবেটিস, হৃদরোগ, হাইপার-টেনশন বা কিডনি রোগে আক্রান্ত হন তাহলে মাংস খাওয়ার পরিমাণটি চিকিৎসকের কাছে জেনে নিতে হবে।

হাসিন আরো জানান, সাধারণত সপ্তাহে তারা এক থেকে দুই বেলা মাংস খেলে তেমন ঝুঁকি নেই। তবে চিকিৎসকরা যদি মাংস খেতে সম্পূর্ণ নিষেধ করেন, তাহলে খাবেন না।

তিনি আরো বলেন, আমাদের বয়স, স্বাস্থ্য, লিঙ্গ এবং শারীরিক পরিশ্রমের ওপর ভিত্তি করে প্রতিদিন ১২০০-২০০০ ক্যালরির প্রয়োজন হয়। এখন সপ্তাহের এক বেলায় যদি আপনি ২৫ গ্রাম চর্বি-ছাড়া মাংস মানে মাঝারি আকারের ২ থেকে ৩ টুকরা মাংস খান। তাহলে সেটা থেকে আপনি হয়তো ৬২ ক্যালোরি পাবেন। যা আপনার প্রতিদিনের চাহিদার মাত্র ৩ শতাংশ থেকে ৫ শতাংশ ক্যালোরির জোগান দেবে। তাই গরুর মাংস মানেই হাই ক্যালোরি, তা নয়।

হাসিন আরো বলেন, যারা এতদিন ভাবতেন গরুর মাংসে সবচেয়ে বেশি কোলেস্টেরল রয়েছে, তাদের বলতে চাই- একটি মুরগির ডিমের কুসুমে ১৯০ মিলিগ্রাম ভালো কোলেস্টেরল থাকে যা চর্বি ছাড়া ২১০ গ্রাম গরুর মাংসের সমান। তাই গরুর মাংস মানেই অনেক বেশি কোলেস্টেরল এই ধারণা ভুল।

সূত্র : বিবিসি

বাংলা/এনএস

বিজ্ঞাপন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

গরুর মাংস নিরাপদ পুষ্টি

আপনার মন্তব্য

Page rendered in: 0.0719 seconds.