• নিজস্ব প্রতিবেদক
  • ০৫ আগস্ট ২০২০ ১২:২২:২৪
  • ০৫ আগস্ট ২০২০ ১৪:৪০:৫৯
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

টেকনাফের ওসিসহ ৯ জনের বিরুদ্ধে মেজর সিনহার পরিবারের মামলা

ফাইল ছবি

পুলিশের গুলিতে সেনাবাহিনীর সাবেক মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান নিহত হওয়ার ঘটনায় তার পরিবারের পক্ষ থেকে মামলা দায়ের করা হয়েছে। এ মামলায় টেকনাফ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) প্রদীপ কুমার দাশ ও বাহারছড়া চেকপোস্টের ইনচার্য লিয়াকত হোসেনসহ ৯ জনকে আসামী করা হয়েছে।

আজ ৫ আগস্ট, বুধবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে টেকনাফ উপজেলা জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট তামান্না ফারহার আদালতে মামলাটি দাখিল করেন সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খানের বোন শারমিন শাহরিয়া। অ্যাডভোকেট মো. মোস্তফার নেতৃত্বে এ মামলা দাখিল করা হয়।

ঢাকা থেকে যাওয়ার পর শারমিন শাহরিয়া সকাল সাড়ে ৯টার দিকে একটি মাইক্রোবাসে করে কক্সবাজার জেলা প্রশাসনের সামনে পৌঁছান। সেখানে অ্যাডভোকেট মো. মোস্তফার চেম্বারে অবস্থান নিয়ে মামলার প্রস্তুতি নেন তিনি। তার সঙ্গে সিনহা পরিবারের অন্য সদস্যরাও রয়েছেন বলে জানা গেছে।

এর আগে ৩১ জুলাই, শুক্রবার রাত সা‌ড়ে ১০টার দি‌কে টেকনা‌ফ উপ‌জেলার বাহারছড়ায় মে‌রিন ড্রাইভ সড়‌কে এক‌টি চেক‌পো‌স্টে পু‌লি‌শের গু‌লি‌তে সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান (৩৬) নিহত হন।

এ বিষয়ে পু‌লিশ দাবি করেছিল, ওই সেনা কর্মকর্তা তার ব্যক্তিগত গা‌ড়ি‌তে ক‌রে টেকনাফ থে‌কে কক্সবাজার আস‌ছি‌লেন। এসময় তার গাড়িতে আরো একজন ছিলেন। ‌মে‌রিন ড্রাইভ সড়‌কের বাহারছড়া চেক‌পো‌স্টে পু‌লিশ গা‌ড়ি‌টি থা‌মি‌য়ে তল্লাশি কর‌তে চাইলে তিনি বাধা দেন। এই শুরু হয় তর্ক-বিত‌র্ক। এক পর্যা‌য়ে সেনা কর্মকর্তা তার কা‌ছে থাকা পিস্তল বের কর‌লে পুলিশ গু‌লি চালায়। এতে ওই সেনা কর্মকর্তা গুরুতর আহত হন। পরে‌ কক্সবাজার সদর হাসপাতা‌লে নি‌লে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা ক‌রেন। আজ শ‌নিবার সকা‌লে নিহ‌তের ময়নাতদন্ত সম্পন্ন হ‌য়ে‌ছে।

তবে পুলিশের এমন ভাষ্য নিয়ে শুরু থেকেই প্রশ্ন ওঠে। ঘটনার প্রত্যক্ষর্শী নিহত সাবেক সেনা কর্মকর্তার এক সঙ্গীর বক্তব্যের সঙ্গে পুলিশের ভাষ্যের কিছুটা অমিল রয়েছে বলে একটি সূত্র জানায়। এমন প্রেক্ষাপটে পুরো বিষয়টি খতিয়ে দেখতে উচ্চ পর্যায়ের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

এ ঘটনায় সেখান থেকে ২০ পুলিশ সদস্যকে প্রত্যাহার করা হয়েছে। ২ জুলাই, রবিবার এই প্রত্যাহার আদেশ দেয়া হয়েছে।

বাংলা/এসএ/

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

Page rendered in: 0.1774 seconds.