• নিজস্ব প্রতিবেদক
  • ১১ আগস্ট ২০২০ ১৯:১২:১৩
  • ১১ আগস্ট ২০২০ ১৯:১২:১৩
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

চার মাস ধরে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ, ধর্ষক গ্রেপ্তার

রেজাউল করিম। ছবি : সংগৃহীত

বগুড়ায় অপহরণের পর সাড়ে চার মাস জিম্মি রেখে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ মামলার প্রধান আসামি রেজাউল করিমকে (৪৮) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। ১১ আগস্ট, মঙ্গলবার দুপুরে ধুনট থানা থেকে আদালতের মাধ্যমে রেজাউলকে জেলা কারাগারে প্রেরণ করা হয়।

এর আগে ১০ আগস্ট, সোমবার মধ্যরাতে গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলার রুপনগর এলাকার একটি বাসা থেকে রেজাউল করিমকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। এ সময় ওই স্কুলছাত্রীকেও উদ্ধার করা হয়।

এদিকে মঙ্গলবার দুপুরের দিকে ভুক্তভোগী স্কুলছাত্রীকে শারীরিক পরীক্ষার জন্য বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

জানা গেছে, ধর্ষণের শিকার মেয়েটি উপজেলার বিশ্বহরিগাছা গ্রামের বাসিন্দা। মেয়েটি স্থানীয় একটি উচ্চবিদ্যালয় থেকে এ বছর এসএসসি পাস করেছে। আর ধর্ষক রেজাউল করিম ওই উপজেলার শেহলিয়াবাড়ি গ্রামের রহিম বক্সের ছেলে। তিনি দুই সস্তানের জনক।

আরো জানা গেছে, রেজাউল বিশ্বহরিগাছা গ্রামে তার বন্ধু সুজন মিয়ার মাধ্যমে ওই স্কুলছাত্রীকে প্রেমের প্রস্তাব দেয়। কিন্তু ওই প্রস্তাবে সাড়া দেয়নি স্কুলছাত্রী। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে গত ২৬ মার্চ বিকেলের দিকে মেয়েটির বাড়ির পাশের রাস্তা থেকে বন্ধু সুজনের সহযোগিতায় সিএনজিচালিত অটোরিকশায় তুলে স্কুলছাত্রীকে অপহরণ করেন রেজাউল। পরে গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলার রুপনগর এলাকায় একটি ভাড়া বাসায় স্কুলছাত্রীকে জিম্মি করে ধর্ষণ করেন তিনি।

এ ঘটনায় মেয়েটির বাবা গত ২৭ মার্চ ধুনট থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। ওই মামলায় রেজাউল কমির ও তার সহযোগী সুজন মিয়াকে আসামি করা হয়।

এ বিষয়ে ধুনট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কৃপা সিন্ধু বালা বলেন, ‘উদ্ধারকৃত ভুক্তভোগীর জবানবন্দি রেকর্ডের জন্য বগুড়া আদালতে এবং মামলার প্রধান আসামি রেজাউল করিমকে কারাগারে পাঠনো হয়েছে।’

বাংলা/এনএস

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

Page rendered in: 0.1370 seconds.