• ক্রীড়া ডেস্ক
  • ০৬ সেপ্টেম্বর ২০২০ ১৩:৩৬:১৮
  • ০৬ সেপ্টেম্বর ২০২০ ১৩:৩৭:৩৩
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

আইপিএল : মোস্তাফিজকে চেয়েও পেলো না কলকাতা-মুম্বাই

ফাইল ছবি

আবারো শুরু হচ্ছে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল)।সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুবাইয়ে ১৯ সেপ্টেম্বর শুরু হচ্ছে টুর্নামেন্টটি। এতে খেলার জন্য বাংলাদেশি ‘কাটার মাস্টার’ মোস্তাফিজুর রহমানকে চেয়েছিল কলকাতা নাইট রাইডার্স (কেকেআর)। তবে শ্রীলঙ্কা সফর থাকায় তাদের প্রস্তাবে না করে দিয়েছে বাংলাদেশি ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।

জানা গেছে, ইনজুরির শিকার হওয়ার চলতি আসরে কেকেআরের হয়ে খেলতে পারছেন না ইংলিশ পেসার হ্যারি গার্নি। তার বদলি হিসেবেই চলতি আইপিএলের প্রথমে দল না পাওয়া মোস্তাফিজকে চেয়েছিল দলটি। একই সাথে লঙ্কান সিমার লাসিথ মালিঙ্গার বদলি হিসেবে তাকে পেতে আগ্রহ দেখিয়েছিল তার পুরনো দল মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সও।

তবে দুই দলের প্রস্তাবই ফিরিয়ে দিয়েছে বাংলাদেশি ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। বোর্ডের ক্রিকেট অপারেশন্সের চেয়ারম্যান আকরাম  খান এ সংবাদের সত্যতা স্বীকার করেছেন।

তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশ তিন টেস্টের সিরিজ খেলতে শ্রীলংকা যাচ্ছে। প্রথম টেস্ট চব্বিশে অক্টোবর।  এই করোনা আবহে বাংলাদেশের খেলোয়াড়দের অনেক আগে শ্রীলংকা পাঠানো হচ্ছে আবহাওয়ার সঙ্গে খাপ খাওয়ানোর জন্যে।’

সেইজন্য মোস্তাফিজ এবারের আইপিএল খেলতে পারছে না বলে জানান তিনি।

আকরাম খান বলেন, ‘সেপ্টেম্বরের ২৭ তারিখ টিম যাবে। ফলে, বাংলাদেশের কোনো ক্রিকেটারকেই আইপিএলে ছাড়া যাবে না। আর মোস্তাফিজ আমাদের দলের অপরিহার্য সদস্য। খুব গুরুত্বপূর্ণ প্লেয়ার। আমাদের দলের ওজন বেড়ে যায় মোস্তাফিজ খেললে। করোনার পর এই সিরিজের গুরুত্বই আলাদা। আর আমাদের তো জাতীয় স্বার্থ দেখতেই হবে।’

এর আগে ২০১৬ সালে সানরাইজার্স হায়দরাবাদের হয়ে প্রথম আইপিএলেই চমকে দেন মোস্তাফিজুর রহমান। সেবারের চ্যাম্পিয়নদের হয়ে ১৭ ম্যাচে ২৬.১৬ গড়ে নিয়েছিলেন ১৭ উইকেট। তার ইকোনমি রেট ছিল ৭.১৪।

পরেরবার ইনজুরির কারণে খেলতে পারেননি আইপিএল। এর পরের বার তাকে দলে ভেড়ায় মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স। সেবার একদমই সাদামাটা ছিল ‘দ্য ফিজ’র পারফরম্যান্স। সাত ম্যাচে নেন সাত উইকেট। তবে গড় বেড়ে দাঁড়ায় ৩২.৮৫।

তবে উইকেট শিকারের চেয়ে মোস্তাফিজুর রহমানের গুরুত্বটা অন্যখানে। ডেথ ওভারে তার বোলিংবৈচিত্র্য যে কোনো দলের সম্পদ। তার কাটারে বিভ্রান্ত হয়ে নাকাল হননি এমন ব্যাটসম্যান বিশ্বক্রিকেটেই বিরল।

বাংলা/এসএ/

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

Page rendered in: 0.0936 seconds.