• বিদেশ ডেস্ক
  • ১০ সেপ্টেম্বর ২০২০ ১৪:১৭:২০
  • ১০ সেপ্টেম্বর ২০২০ ১৪:১৭:২০
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

মানব কর্মে হ্রাস পেয়েছে বন্যপ্রাণী, বিজ্ঞানীদের সতর্কতা

ছবি : বিবিসি থেকে নেয়া

সারাবিশ্বে গত ৫০ বছরে বন্যপ্রাণীদের সংখ্যা দুই-তৃতীয়াংশ হ্রাস পেয়েছে বলে জানিয়েছে ওয়ার্ল্ড ওয়াল্ডলাইফ ফান্ড (ডাব্লিউডাব্লিউএফ)। এই ‘বিপর্যয়কর অবনতি’ ধীর হওয়ার কোনো লক্ষণও দেখা যাচ্ছে না বলেও ওই প্রতিবেদনে তুলে ধরে সংস্থাটি।

এই ঘটনা সতর্ক করে যে মানুষের দ্বারা প্রকৃতি ব্যাপকহারে ধ্বংস হচ্ছে যা আগে কখনো দেখা যায়নি। সারাবিশ্বের আবাসস্থলে বসবাসরত হাজার হাজার বিভিন্ন প্রজাতির বন্যপ্রাণীর উপর পর্যবেক্ষণ করে প্রাকৃতিক পরিবেশ সংরক্ষণ বিজ্ঞানীরা এই প্রতিবেদনটি তৈরি করেছে। এমন খবর প্রকাশ করেছে সংবাদমাধ্যম বিবিসি।

ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, ১৯৭০ সাল থেকে ২০ হাজারেরও বেশি স্তন্যপায়ী, পাখি, উভচর, সরীসৃপ এবং মাছের সংখ্যা গড়ে ৬৮ শতাংশ হ্রাস পেয়েছে।

মানুষ ও প্রকৃতি কিভাবে একে অপরের সঙ্গে জড়িত করোনা (কোভিড-১৯) মহামারী তার জ্বলন্ত উদাহরণ বলেও প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়।

এ বিষয়ে তথ্য সরবরাহ করেছেন জুলজিকাল সোসাইটি অফ লন্ডনের (জেডএসএল) প্রাকৃতিক পরিবেশ সংরক্ষণের পরিচালক ড. অ্যান্ড্ররু টেরি। তিনি বলেন, এই হ্রাসের সংখ্যা পরিষ্কার প্রমাণ যে মানুষের ক্রিয়াকলাপ বিশ্ব পরিবেশের জন্য ক্ষতি করছে।

টেরি আরো বলেন, যদি এর পরিবর্তন না হয়, নিঃসন্দেহে প্রানীদের সংখ্যা হ্রাস পাবে। যা বন্যপ্রানীদের বিলোপের পথে নিয়ে যাবে এবং সমগ্র বাস্তুতন্ত্র যার উপর আমরা নির্ভরশীল তা হুমকির মধ্যে পড়বে।

ডাব্লিউডাব্লিউএফ’র প্রধান নির্বাহী তানিয়া স্টেল জানান, আমাদের বন পোড়ানো, সমূদ্র থেকে অতিরিক্ত মাছ আহরণ এবং বনাঞ্চল ধ্বংস করার কারণে বন্যপ্রাণীদের সংখ্যা হ্রাস পাচ্ছে।

তিনি আরো বলেন, ‘আমরাই আমাদের পৃথিবীকে ধ্বংস করে দিচ্ছি, যাকে আমারা বাড়ি বলি। আর এতে করে আমাদের স্বাস্থ্য, নিরাপত্তা এবং পৃথিবীতে বাসকরা ঝুঁকির মধ্যে পড়ে যাচ্ছে। এখন পৃথিবী মরিয়া হয়ে আমাদের কাছে সংকেত বাণী পাঠাচ্ছে।’

বাংলা/এনএস

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

Page rendered in: 0.1203 seconds.