• বার্তা ডেস্ক
  • ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২০ ০৯:৪৭:১৭
  • ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২০ ১৪:১৬:৩০
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

শুক্র গ্রহের মেঘে ফসফিন, প্রাণের চিহ্ন দেখছেন বিজ্ঞানীরা!

ফাইল ছবি

পৃথিবীর নিকটতম গ্রহ শুক্রের মেঘে জীবনের চিহ্ন দেখতে পেয়েছেন জ্যোতির্বিজ্ঞানীরা। গ্রহটিকে ঘিরে থাকা মেঘের মধ্যে ফসফিন জাতীয় রাসয়নিকের অস্তিত্ব পেয়েছেন তারা। যা মাইক্রবস বা অনুজীব থাকার ইঙ্গিত দেয়।

একটি অণু গঠনের জন্য তিনটি হাইড্রোজেন পরমাণু আর একটি ফসফরাস পরমাণুর প্রয়োজন হয়। আর ফসফিন গ্যাসেই পাওয়া যায় ফসফরাস পরমাণু। এই গ্যাস পৃথিবীতে উৎপন্ন হয় ব্যাকটেরিয়া থেকে। অক্সিজেন রয়েছে—এমন পরিবেশে থাকা ব্যাকটেরিয়া এই গ্যাস নিঃসরণ করে।

পৃথিবীর জীবনের সঙ্গে গভীর সম্পর্ক রয়েছে এই ফসফিন গ্যাসের। পেঙ্গুইনের মতো প্রাণীর দেহের অভ্যন্তরে বসবাসকারী অণুজীব কিংবা জলাভূমির মতো কম অক্সিজেনের এলাকাতে থাকা অণুজীবের সঙ্গে ফসফিন গ্যাসের সম্পর্ক রয়েছে।

যুক্তরাজ্যের কার্ডিফ ইউনিভার্সিটি ইন ওয়েলসের জ্যোতির্বিজ্ঞানী অধ্যাপক জেন গ্রিভস ও তার সহকর্মীরা জীবনের জন্য প্রয়োজনীয় এই গ্যাসটি শনাক্ত করেছেন। তবে সেটি কীভাবে সেখানে পৌঁছেছে তা এখনো ব্যাখ্যা করতে পারেননি তারা।

গ্যাসটি হয়তো প্রাকৃতিকভাবেই সেখানে তৈরি হয়েছে বলে ন্যাচার অ্যাস্ট্রোনোমি জার্নালে প্রকাশিত এক নিবন্ধে তারা উল্লেখ করেন বলে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমগুলোতে প্রকাশিত হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের হাওয়াই দ্বীপপুঞ্জে স্থাপিত জেমস ক্লার্ক ম্যাক্সওয়েল টেলিস্কোপের সাহায্যে এই ফসফিন গ্যাসের অস্তিত্ব শনাক্ত করেন বিজ্ঞানীরা। পরে চিলির অ্যাটাকামা লার্জ মিলিমিটার/সাবমিলিমিটার অ্যারে (এএলএমএ) রেডিও টেলিস্কোপের সাহায্যে পর্যবেক্ষণ করে এ সম্পর্কে তারা নিশ্চিত হন।

বাংলা/এসএ/

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.1807 seconds.