• বিদেশ ডেস্ক
  • ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২০ ২০:৩৮:১৫
  • ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২০ ১১:২৭:১১
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

ইসরায়েলের সঙ্গে চুক্তি, ঐক্যবদ্ধ হচ্ছে ফিলিস্তিন

ছবি : সংগৃহীত

নিজের মধ্যকার দ্বন্দ্ব ও মতবিরোধ ভুলে ফিলিস্তিনের প্রধান রাজনৈতিক দলগুলো ঐক্যবদ্ধ হচ্ছে। সম্প্রতি মধ্যপ্রাচ্যের আরব দেশগুলোর সঙ্গে ইসরায়েলের সুসম্পর্ক তৈরির প্রেক্ষাপটে সৃষ্ট হুমকি মোকাবিলায় এক মঞ্চে আসতে চলছে ফিলিস্তিনের এই দলগুলো।

ইসরায়েলের বিরুদ্ধে গাজা উপত্যকা ও পশ্চিম তীরের মধ্যে সব বিরোধ মিটিয়ে রাজনৈতিক দলগুলোর মধ্যে সমঝোতা এখন সময়ের ব্যাপার মাত্র বলেই ধারণা করা হচ্ছে। এমন খবর প্রকাশ করেছে সংবাদমাধ্যম আলজাজিরা।

সংযুক্ত আরব আমিরাত ও বাহরাইনের নেতারা ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্কের উন্নয়ন ঘটাতে আনুষ্ঠানিকভাবে চুক্তি সম্পাদন করবেন। ১৫ সেপ্টেম্বর, মঙ্গলবার মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের হোয়াইট হাউসে এই চুক্তি স্বাক্ষর হবে। এতে করে স্বাধীন ফিলিস্তিন রাষ্ট্র গঠনে আরব বিশ্বের দীর্ঘ দুই দশকের দাবি হুমকির মধ্যে পড়ে যাবে। এমতাবস্তায় গত শনিবার মাঠপর্যায়ে নেতৃত্বকে ঐক্যবদ্ধ করতে সম্মত হয়েছে হামাস ও ফাতাহ’র নেতৃত্বাধীন ফিলিস্তিনি গোষ্ঠীগুলো।

মঙ্গলবার এক বিবৃতিতে তারা জানায়, গাজা ও পশ্চিম তীরে ‘ক্রোধের দিন’ পালনের পরিকল্পনা করছে ফিলিস্তিনিরা। এছাড়া সারাবিশ্বে ইসরায়েল, যুক্তরাষ্ট্র, সংযুক্ত আরব আমিরাত ও বাহরাইনের দূতাবাসগুলোর বাইরেও বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করা হবে।

এর আগে গত ৩ সেপ্টেম্বর ফিলিস্তিনির প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাস, হামাসের নেতা ইসমাইল হানিয়া, ইসলামিক জিহাদের প্রধান জিয়াদ আল-নাখালাসহ বেশ কয়েকটি দল এবং গোষ্ঠীর নেতাদের মধ্যে বহুল প্রতীক্ষিত বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে।

এই বৈঠকে তিনটি কমিটি করা হয়েছে। এর মধ্যে প্রথমটির কাজ ইসরায়েলি দখলদারিত্ব প্রতিরোধে ফিলিস্তিনের মাঠপর্যায়ের নেতাদের ঐক্যবদ্ধ করা, দ্বিতীয়টির কাজ গাজা ও পশ্চিম তীরের মধ্যে বিরোধ নিষ্পত্তি এবং তৃতীয়টিকে ফিলিস্তিনি স্বাধীনতা সংঘ (পিএলও) পুনরুজ্জীবিতকরণের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে।

এছাড়াও কমিটিগুলোকে ফিলিস্তিনি প্রেসিডেন্টের কাছে সুপারিশ জানাতে পাঁচ সপ্তাহ সময় বেঁধে দেয়া হয়েছে। মাহমুদ আব্বাস প্রতিশ্রতি দিয়েছেন, সুপারিশ যাই হোক না কেন তিনি সেগুলোতে সম্মতি দেবেন।

এই বৈঠকের জন্য হামাসসহ ফিলিস্তিনের অন্য দলগুলোর দীর্ঘদিন ধরে দাবি করে আসছিল। কিন্তু আগের চুক্তি মেনে চলার দাবি জানিয়ে এ অনুরোধ প্রত্যাখ্যান করছিলেন প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাস। তবে সাম্প্রতিক সময়ে ইসরায়েল-আরব ঐক্যের চাপে অবশেষে মত বদলেছেন ফিলিস্তিনি প্রেসিডেন্ট।

বাংলা/এনএস

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0720 seconds.