• নিজস্ব প্রতিবেদক
  • ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০ ১৩:২১:৫২
  • ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০ ১৩:৩৭:৫৩
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

প্রেমপ্রস্তাব প্রত্যাখ্যান : ভাইয়ের কাছ থেকে অসুস্থ কিশোরীকে ছিনিয়ে নিয়ে হত্যা

নিহত নীলা ও বখাটে মিজানুর রহমান। ছবি : সংগৃহীত

প্রেমের প্রস্তাব ফিরিয়ে দেয়ায় ঢাকার সাভারে ভাইয়ের কাছ থেকে অসুস্থ এক কিশোরীকে ছিনিয়ে নিয়ে ছুরিকাঘাতে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। গতকাল ২০ সেপ্টেম্বর, রবিবার রাতে পৌরসভার পালপাড়া এলাকার গার্লস রোডে ঘটে এই হত্যাকাণ্ড।

অভিযুক্ত মিজানুর রহমান (২০) বখাটে হিসেবে এলাকায় পরিচিত। আর ঘটনার শিকার কিশোরী নীলা রায় (১৪) স্থানীয় অ্যাসেড স্কুলে দশম শ্রেণিতে পড়তো। সে মানিকগঞ্জ জেলার বালিরটেকের নারায়ণ রায়ের মেয়ে। তারা সাভার পৌর এলাকার কাজী মোকমা পাড়ার শীতল ভিলায় ভাড়া থাকতেন। আর বখাটে মিজানুর একই এলাকা কাজী মোকমা পাড়ার বাসিন্দা।

পরিবার ও পুলিশ সূত্র জানায়, প্রায় দেড় বছর ধরে নীলাকে প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে আসছিলো স্থানীয় একটি কলেজের এইচএসসি পরীক্ষার্থী মিজানুর রহমান। প্রস্তাবে সাড়া না দেয়ায় সে নীলাকে উত্যক্ত করে আসছিল। এ বিষয়ে মিজানের পরিবারে অভিযোগ জানানোর পরও তারা কোনো ব্যবস্থা নেননি। উল্টো মিজানের মা নীলাকে মিজানের সঙ্গে কথা বলতে ও ফেসবুকে চ্যাট করার পরামর্শ দিতেন।

গতকাল সন্ধ্যার পর নীলার শ্বাসকষ্ট দেখা দিলে সে ভাই অলক রায়ের সাথে রিকশায় করে হাসপাতালে যাচ্ছিলেন। বাসার কিছু দূরে গার্লস স্কুল রোডে পূর্ব থেকে দাঁড়িয়ে থাকা বখাটে যুবক মিজানুর তার সহযোগীদের নিয়ে নিলা ও তার ভাই অলকের গতিরোধ করে। এরপর অস্ত্রের মুখে নীলাকে টেনে হিঁচড়ে রিকশা থেকে নামিয়ে ভাই অলককে বাসায় পাঠিয়ে দেয় বখাটে মিজানুর। পরে সে নীলাকে নিয়ে পালপাড়া এলাকায় যায়।

তার সাথে কথা বলার একপর্যায়ে ক্ষিপ্ত হয়ে নীলাকে উপুর্যপুরি ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায় মিজানুর। পথচারীরা এগিয়ে এসে রক্তাক্ত নিলাকে রিকশায় করে সাভার এনাম মেডিকেল হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত সাড়ে ৯টার দিকে নীলা মারা যায়।

নিহত নীলার মা জানান, বখাটে যুবক মিজানুর তার মেয়েকে উত্ত্যক্ত করলেও ভয়ে তিনি কিছু বলতে পারতেন না। মাদকসেবী এবং অনেক খারাপ ছেলেদের সঙ্গে নিয়ে সে চলাফেরা করতো।

আর নীলার ভাই অলক রায় দাবি করেন, উত্ত্যক্ত করার প্রতিবাদ করলে মিজান তাদের পরিবারের সবাইকে হত্যার হুমকি দিতেন। আর তারা মিজানকে দুর্ধর্ষ ও ক্ষমতাধর মনে করে ভয়ে সব চেপে যেতেন।

পুলিশের কাছে অভিযোগ করে আরো বিপদে পড়তে পারেন এমন আশঙ্কায় তারা বিষয়টি পুলিশকে জানাননি বলেও জানান অলক।

এ হত্যাকাণ্ডের বিষয়টি নিশ্চিত করে সাভার মডেল থানার অফিসার  ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এএফএম সায়েদ জানান, বখাটে ওই যুবক পালিয়ে গেলেও তাকে গ্রেপ্তারে অভিযান চালানো হচ্ছে।

প্রাথমিকভাবে প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করবার ফলে এমন ঘটনা বলে জানা গেলেও তদন্ত শেষে বিস্তারিত জানানো যাবে বলেও জানান এই পুলিশ কর্মকর্তা।

এ ঘটনায় সাভার মডেল থানায় নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে একটি হত্যা মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে জানা গেছে।

বাংলা/এসএ/

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0783 seconds.