• বিদেশ ডেস্ক
  • ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০ ১৬:২৬:২৭
  • ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০ ১৬:২৬:২৭
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

করোনার ‘বধে’ ৪ ওষুধ, অ্যান্টিবায়োটিকে সতর্কতা

ফাইল ছবি

চারটি ওষুধ প্রয়োগ করে করোনার (কোভিড-১৯) চিকিৎসায় সফলতা পাওয়ার দাবি করেছে ভারতের চিকিৎসকরা। আইভারমেকটিন, ডক্সিসাইক্লিন, জিঙ্ক এবং ভিটামিন ডি-থ্রি এই চারটি ওষুধ করোনা রোগীদের উপর প্রয়োগ করে তারা এই সফলতা পান। এছাড়াও দেশটির শীর্ষ স্বাস্থ্যসংস্থা আইসিএমআর’ও ওষুধগুলোকে স্বীকৃতি দেয়ার পথে।

এদিকে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের স্বাস্থ্য অধিদপ্তর অ্যান্টিবায়োটিক প্রয়োগের ক্ষেত্রে করোনা হাসপাতাল ও রোগীদের আবারো সতর্ক করেছে। খুব দরকার ছাড়া অ্যান্টিবায়োটিক ব্যবহার না করার জন্য বলা হয়। এমন খবর প্রকাশ করেছে দেশটির গণমাধ্যম সংবাদ প্রতিদিন।

ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, আইভারমেকটিন, ডক্সিসাইক্লিন, জিঙ্ক এবং ভিটামিন ডি-থ্রি ভিন্ন মাত্রায় করোনা আক্রান্তের উপর প্রয়োগ করা হয়। আর এতেই সুফল পেয়েছেন ভারতের চিকিৎসকরা। এর আগে বাংলাদেশের চিকিৎসকরাও করোনা রোগীকে আইভারমেকটিন প্রয়োগ করে একই সফলতা পাওয়ার বিষয়টিও উল্লেখ করা হয়। এবার সেই ওষুধের সঙ্গে ডক্সিসাইক্লিন জিঙ্ক এবং সপ্তাহে একদিন করে ভিটামিন ডি-থ্রি প্রয়োগ করতে বললেন ভারতের চিকিৎসকরা।

চিকিৎসকরা জানান, আইভারমেকটিন, ডক্সিসাইক্লিন এবং জিঙ্ক জাতীয় ওষুধ টানা ১৪ দিন করোনা রোগীকে প্রয়োগ করতে হবে। এর সঙ্গে রক্ত পরীক্ষা করে ভিটামিন ডি-থ্রিও দিতে হবে।

এ বিষয়ে রাজ্যের স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. অজয় চক্রবর্তী জানান, দেশটির সরকারি হাসপাতালে করোনা রোগীকে আইভারমেকটিন দেয়া হবে দ্রুত সিদ্ধান্ত হবে। আর অন্য ওষুধগুলো প্রোটোকল মেনেই প্রয়োগ করছেন চিকিৎসকরা।

স্কুল অফ ট্রপিক্যাল মেডিসিনের কর্মকর্তা ডা. প্রতীপ কুণ্ডু জানান, চিকিৎসকরা যেসব ওষুধ দিয়ে করোনা রোগীদের সুস্থ করেছেন, তাকেই স্বীকৃতি দিতে যাচ্ছে আইসিএমআর।

এদিকে ২৩ সেপ্টেম্বর, বুধবার পশ্চিমবঙ্গের স্বাস্থ্য অধিদপ্তর সব করোনা হাসপাতালকে রোগীদের উপর অ্যান্টিবায়োটিক প্রয়োগের ক্ষেত্রে সতর্ক জারি করে। কারণ হিসাবে বলা হয়, ভাইরাল রোগের ক্ষেত্রে অ্যান্টিবায়োটিক তেমন একটা কার্যকর নয়। আর এমনটা হলে সঙ্গে সঙ্গেই অ্যান্টিবায়োটিক বন্ধ করতে হবে। রোগীর রক্ত, মূত্র ও অন্যান্য বিষয় পরীক্ষা এবং সিটি স্ক্যান করতে হবে।

বাংলা/এনএস

বিজ্ঞাপন

সংশ্লিষ্ট বিষয়

করোনাভাইরাস ওষুধ ভারত

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0861 seconds.