• বিদেশ ডেস্ক
  • ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০ ১৫:৩৪:৪৯
  • ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০ ১৫:৩৪:৪৯
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

করোনার পর আঘাত হানতে পারে ‘ক্যাট কিউ’ : গবেষণা

ছবি : সংগৃহীত

করোনা (কোভিড-১৯) মহামারীতে কাবু মানব সভ্যতা। এখনো আবিষ্কার হয়নি প্রাণঘাতী ভাইরাসটির ওষুধ। এর মধ্যেই চীনের আরেক একটি ভাইরাসকে নিয়ে আতঙ্ক দেখা দিয়েছে। নতুন এই ভাইরাসটির নাম ‘ক্যাট কিউ’। ভাইরাসটি ভারতেও ছড়িয়ে পড়তে পারে বলে শঙ্কা করা হচ্ছে।

‘ক্যাট কিউ’ সম্পর্কে এমন সতর্ক বার্তা দিয়েছেন ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অফ মেডিক্যাল রিসার্চের (আইসিএমআর) বিশেষজ্ঞরা। এমন খবর প্রকাশ করেছে ভারতের গণমাধ্যম সংবাদ প্রতিদিন।

বিশেষজ্ঞরা জানান, ‘ক্যাট কিউ’ ভাইরাসে আক্রান্ত হলে জ্বর হতে পারে। এছাড়া মেনিনজাইটিস, পেটিয়াট্রিক এনসেফেলাইটিসও হওয়ার সম্ভবনা রয়েছে আক্রান্ত ব্যক্তির।

আইসিএমআর’র ‘ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ ভাইরোলজি’ বিভাগের সাতজন গবেষক তাদের প্রতিবেদনে জানান, কিউলেক্স মশা ও শূকরের শরীরে এই ভাইরাস পাওয়া গেছে।

বিশেষজ্ঞদের ধারণা, চীনের মতোই কিউলেক্স মশার অনুরূপ প্রজাতি ভারতেও রয়েছে। তাই এই মশাদের মধ্যে ভাইরাসের গঠনের বিষয়টি বোঝা জরুরি। এছাড়াও স্তন্যপায়ী প্রাণীদের মধ্যে শূকরের শরীরে এই ভাইরাস ও ভাইরাসটিকে ধ্বংসকারী অ্যান্টিবডি পাওয়া গিয়েছে বলেও জানিয়েছেন তারা।

গবেষকরা আরো জানান, ভারতে এ পর্যন্ত ৮৮৩ জনের মধ্যে দুই ব্যক্তির শরীরে এই ভাইরাসটির অ্যান্টিবডি পাওয়া গেছে। আর এর থেকেই ধারণা করা হচ্ছে, এই দুই ব্যক্তি কোনো না কোনো সময় এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছিলেন।

তারা আরো জানান, ভিয়েতনামেও কিউলেক্স মশার উপস্থিতি পাওয়া গেছে। এছাড়াও দেশটির শূকরদের শরীরেও এই ভাইরাস শনাক্ত করা হয়েছে। এমতাবস্তায় এশিয়ার বাকী দেশগুলোতেও এই ভাইরাসের সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার সম্ভাবনা রয়েছে বলেও জানান বিশেষজ্ঞরা।

ভারতে এই ভাইরাসের উপস্থিতির বিষয়টি নিশ্চিত হতে আরো বেশি নমুনা পরীক্ষা করে দেখা প্রয়োজন বলেও জানান আইসিএমআর’র বিজ্ঞানীরা।

এদিকে ওয়ার্ল্ডোমিটার’র তথ্য মতে, আজ ৩০ সেপ্টেম্বর, বুধবার সকাল সোয়া ৮টা পর্যন্ত সারা পৃথিবীতে করোনায় আক্রান্ত বেড়ে ৩ কোটি ৩৮ লাখ ৩৮ হাজার ৫৬৬ জনে দাঁড়িয়েছে। এদের মধ্যে ১০ লাখ ১২ হাজার ৫৮৯ জন ইতোমধ্যে মারা গেছেন। বিপরীতে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ২ কোটি ৫১ লাখ ৪৩ হাজার ৯২৭ জন। বর্তমানে চিকিৎসাধীন আছেন ৭৬ লাখ ৮২ হাজার ৫০ জন করোনারোগী, যাদের মধ্যে ৬৫ হাজার ৯১৪ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

বাংলা/এনএস

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0794 seconds.