• বিদেশ ডেস্ক
  • ০৯ অক্টোবর ২০২০ ১৬:৫১:৩৯
  • ০৯ অক্টোবর ২০২০ ১৬:৫১:৩৯
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

শান্তিতে নোবেল পেলো ডব্লিউএফপি

ছবি : সংগৃহীত

চলতি বছর শান্তিতে নোবেল পুরস্কার পেয়েছে বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচি (ডব্লিউএফপি)। ক্ষুধামুক্ত বিশ্ব গড়ার লড়াইয়ে বিশেষ ভূমিকা রাখার স্বীকৃতিস্বরূপ সংস্থাটিকে এই পুরস্কার দেয়া হয়েছে। ৯ অক্টোবর, শুক্রবার এক সংবাদ সম্মেলনে নরওয়ের নোবেল কমিটি এমন ঘোষণা দিয়েছে।

মূলত জাতিসংঘের সহযোগী সংস্থা হলো বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচি। এটি ক্ষুধা ও খাদ্য নিরাপত্তা বিষয়ক বিশ্বের সবচেয়ে বড় সংস্থা। এমন খবর প্রকাশ করেছে সংবাদমাধ্যম সিএনএন।

এই সংস্থাটি ১৯৬১ সালে প্রতিষ্ঠা করা হয়। ক্ষুধার বিরুদ্ধে লড়ায়ের চেষ্টা ও যুদ্ধবিধ্বস্ত অঞ্চলগুলোতে শান্তি প্রতিষ্ঠায় সহায়তা করা। এছাড়াও যুদ্ধ-সংঘাত কবলিত এলাকায় ক্ষুধাকে যাতে অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করা না হয়, তা প্রতিরোধে মূল ভূমিকা রাখার জন্য ডব্লিউএফপি’কে শান্তিতে নোবেল পুরস্কার দেয়া হলো।

ডব্লিউএফপি’র তথ্য মতে, সংস্থাটি প্রতি বছর ৭৫টি দেশের ৯ কোটি মানুষকে খাদ্য সহায়তা প্রদান করে। রোমভিত্তিক সংস্থাটির বিশ্বে ৮০টিরও বেশি শাখা রয়েছে। যে সব মানুষ নিজেদের জন্য এবং পরিবারের জন্য যথেষ্ট পরিমাণ খাবার উৎপাদন কিংবা আহরণ করতে অক্ষম তাদের সাহায্যের জন্য কাজ করে সংস্থাটি।

ডব্লিউএফপিকে শান্তিতে নোবেল পুরস্কারে ভূষিত করার মাধ্যমে বিশ্বের দেশগুলোর সরকারকে এই বার্তা দেয়া হয়েছে- যাতে আন্তজাতিক মানবিক সহায়তা সংস্থাগুলোর তহবিল কাটছাঁট না করা হয়।

নরওয়ের নোবেল কমিটির প্রধান বেরিট রেইস-আন্ডারসন জানান, বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচির তহবিল না কমাতে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান জানাতেই এবারের এই পুরস্কার ঘোষণা করা হয়েছে। মানুষ যাতে খাদ্যাভাবে না থাকেন, তা নিশ্চিত করতে সব দেশের এক ধরনের বাধ্যবাধকতা আছে।

সম্প্রতি কয়েক বছরে সংস্থাটির তহবিল কমে গেছে। যুক্তরাষ্ট্রসহ বিভিন্ন দেশ তহবিল কমিয়ে দেয়ার কারণে এমন অবস্থা তৈরি হয়েছে। এমতাবস্তায় এ বিষয়ে সবার মধ্যে সচেতনতা সৃষ্টি করতেই ডব্লিউএফপি’কে এ বছরের নোবেল পুরস্কারটি দেয়া হয়েছে।

বাংলা/এনএস

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0823 seconds.